পশ্চিমবঙ্গ দিবস নিয়ে বি.তর্কের মাঝেই প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক রাজ্যপালের

একদিকে যখন পশ্চিমবঙ্গ দিবসের দিন ঠিক করতে তৎপর রাজ্য সরকার, ঠিক সেই সময় প্রধানমন্ত্রী(Prime Minister) নরেন্দ্র মোদির(Narendra Modi) সঙ্গে হঠাৎ সাক্ষাৎ সারলেন রাজ্যপাল(Govornor) সিভি আনন্দ বোস (CV Anand Bose)। মঙ্গলবার নিজের বাসভবনে সিভি আনন্দ বোসের সঙ্গে ৪৫ মিনিটের বৈঠক করলেন প্রধানমন্ত্রী। এই বৈঠককে ঘিরে রাজ্যরাজনীতিতে জল্পনা শুরু হয়েছে।

পিএমও-র তরফে জানানো হয়েছে, এদিন ফুল দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বাংলার রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস। তাঁদের মধ্যে একপ্রস্থ আলোচনাও হয়। যদিও ঠিক কী নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হল, তা স্পষ্ট নয়। তবে ‘পশ্চিমবঙ্গ দিবস’ থেকে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনকে ‘পাখির চোখ’ করে পঞ্চায়েত নির্বাচনে হিংসা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রাজ্যপাল আলোচনা করতে পারেন বলে সূত্রের খবর। এই মুহূর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিয়োগ থেকে শুরু করে বন্দিমুক্তির ফাইল ফেরত পাঠানো, নানা ইস্যুতে রাজ্য-রাজ্যপালের সংঘাত তুঙ্গে। পঞ্চায়েত নির্বাচন পর্বের অশান্তি নিয়ে বার বার কড়া বার্তা দিয়েছেন রাজ্যপাল। রাজভবন থেকে বেরিয়ে তিনি পৌঁছে গিয়েছেন গ্রাউন্ড জিরোয়। অশান্তির অভিযোগ শুনতে রাজভবনে বেনজিরভাবে খুলেছেন পিস রুম। সম্প্রতি আবার দুর্নীতির অভিযোগ শুনতে রাজভবনে অ্যান্টি কোরাপশন সেলও খোলেন তিনি।

এর পাশাপাশি এই আলোচনার বিষয়বস্তু নিয়ে আরও একটি দিক উঠে আসছে। রাজনৈতিক মহলের ধারণা, পশ্চিমবঙ্গ দিবস নিয়ে ২০ জুন দিনটিকে বাতিল করে রাজ্য সরকারের তরফে নয়া দিন ঠিক করার বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর কানে তুলেছেন রাজ্যপাল। উল্লেখ্য, মাস কয়েক আগেই অন্যান্য রাজ্যের মতো পশ্চিমবঙ্গ দিবসও হোক বলে দাবি তোলেন বিরোধীরা। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী ২০ জুন পশ্চিমবঙ্গ দিবস করার দাবি জানান। যদিও তার তীব্র বিরোধিতা করে রাজ্য সরকার। কিন্তু, রাজ্যের আপত্তি উপেক্ষা করেই রাজভবনে ২০ জুন পশ্চিমবঙ্গ দিবস পালন করেন রাজ্যপাল সি.ভি আনন্দ বোস। যা নিয়ে নতুন করে রাজ্য-রাজ্যপাল সংঘাত বাধে। এরপর রাজ্যের সমস্ত শ্রেণীর মানুষের পরামর্শ নিয়ে নবান্নে সর্বদলীয় বৈঠকও করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে পশ্চিমবঙ্গ দিবস হিসেবে বেশিরভাগই ১ বৈশাখ দিনটিকে প্রাধান্য দেন। এই আবহে রাজ্যপাল-প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

আরও পড়ুন- নয়া মানচিত্রে অরুণাচলকে নিজেদের দাবি চিনের! মোদির মৌনতায় সরব তৃণমূল-সহ বিরোধীরা

 

Previous articleনয়া মানচিত্রে অরুণাচলকে নিজেদের দাবি চিনের! মোদির মৌনতায় সরব তৃণমূল-সহ বিরোধীরা
Next articleKolkata Metro: লন্ডন, মস্কো, বার্লিনের ‘এলিট ক্লাবে’ ঢুকছে কলকাতা মেট্রো!