দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে “বুলবুল” দাপট, সপ্তাহখানেক পিছিয়ে গেল মুখ্যমন্ত্রীর রাস উৎসবে যাওয়ার দিনক্ষণ

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কোচবিহার সফরের আসার কথা ছিল আগামী ১৩ নভম্বর। কিন্তু গোটা দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে বুলবুল ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়েছে এবং তাতে রাজ্যবাসীর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঘরবাড়ি ভেঙে পড়ে অনেক মানুষ গৃহহীন ও অসহায় হয়েছেন। আর সেই বিষয়টিকে অগ্রাধিকার দিয়েই আপাতত তাঁর কোচবিহার সফর স্থগিত করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। নবান্ন সূত্রে জানা গেছে, এখনও পুরোপুরি মুখ্যমন্ত্রীর কোচবিহার সফর বাতিলের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। আগামী ১৩ নভেম্বরর পরিবর্তে তিনি ১৯ নভেম্বর কোচবিহারের প্রসিদ্ধি রাসমেলায় যেতে পারেন। এবং মদনমোহনের মন্দিরে পুজো দিতে পারেন।

এইবারই প্রথম কোচবিহারের ঐতিহ্যবাহী দুশো বছরের প্রাচীন এই রাস মেলায় উপস্থিত থাকার কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রীর। তাঁর সফরকে ঘিরে কিন্তু চরম উন্মাদনা শুরু হয়ে গিয়েছিল। শুরু হয়েছিল প্রশাসনিক তৎপরতাও। কিন্তু তারই মাঝে সফরসূচির পরিবর্তন জেলা প্রশাসনকে কিছুটা হলেও সমস্যায় ফেলবে বলে মনে করছেন অনেকেই। রাসমেলার সময় মুখ্যমন্ত্রী ঠিক কবে আসবেন এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য না করে জেলাশাসক পবন কাদিয়ান জানান,১৩ তারিখ মুখ্যমন্ত্রীর নিজেই তাঁর সফর বাতিল করেছেন।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই শিলিগুড়িতে প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তাঁকে রাসমেলায় আসার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয় কোচবিহারের রাস উৎসবে আসার জন্য। সেইমতো আগামী ১৩ নভেম্বর কোচবিহার আসার কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রীর। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। কিন্তু ওইদিন তিনি আসছেন না বলে জানিয়েছেন। শোনা যাচ্ছে, ১৯নভেম্বর তিনি কোচবিহারে আসতে পারেন।

কোচবিহার জেলা তৃণমূল সভাপতি বিনয় কৃষ্ণ বর্মন বলেন, মুখ্যমন্ত্রী যদি শেষ পর্যন্ত রাস উৎসবে আসতে না পারেন, সেক্ষেত্রে রাস মেলায় উপস্থিত না হলেও মেলার উদ্বোধনের দিন মুখ্যমন্ত্রীর নামে পুজো দেওয়া হবে।