ফাঁসির ৭০ বছর পরে নির্দোষ প্রমাণিত! পুরোটা জানলে আপনার চোখেও জল আসবে

সাত দশক ধরে বিচারের বাণী নীরবে নিভৃতে কাঁদলো। ফাঁসির ৭০ বছর পরে অবশেষে ‘সুবিচার’ পেলেন দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিক চ্যাং হাওয়ান-বং।

বাম সমর্থিত নাগরিক অভ্যুত্থানে সহায়তা করার জন্য ১৯৪৮ সালে চ্যাং-সহ বহু নাগরিককে মৃত্যুদণ্ড দেয় সে দেশের আদালত। এরপর ২০০৯ সালে সরকারের ট্রুথ প্যানেল জানিয়ে দেয়, চ্যাং-সহ ৪৩৮ জনকে বিদ্রোহীদের সহায়তার জন্য অন্যায়ভাবে দোষী সাব্যস্ত করে ফাঁসি দেওয়া হয়েছিল। যা খুনের সামিল।

ট্রুথ প্যানেলের সেই রায়ের পর ২০১৩ সালে বাবার দোষী সাব্যস্ত হওয়ার রায় পুনর্বিবেচনার আর্জি জানান চ্যাংয়ের মেয়ে। সুপ্রিম কোর্ট সেই আর্জি মেনে নেয়। এরপর আদালত জানায়, চ্যাংয়ের অপরাধের সপক্ষে কোনও প্রমাণ নেই। এই রায়ে খুশি চ্যাংয়ের মেয়ে বলেন, “বাবাকে ফিরে পাবো না ঠিকই, কিন্তু আমার বাবাকে যে অন্যায়ভাবে খুন করা হয়েছিল তা প্রমাণিত হল।”