প্রয়াত প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী সতীশ গুজরাল

চলে গেলেন দেশের অন্যতম খ্যাতিনামা চিত্রশিল্পী সতীশ গুজরাল। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৪ বছর। নিজের বাসভবনেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। সতীশ গুজরাল দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দ্রকুমার গুজরালের ভাই।

প্রয়াত চিত্রশিল্পীর হাতেই সৃষ্টি দিল্লি হাইকোর্টের বিখ্যাত অ্যালফাবেট ম্যুরালটি। দিল্লিতেই বেলজিয়ান এমব্যাসিও তাঁর হাত ধরে রূপ পেয়েছে। তাঁর ক্যানভাসে ফুটে উঠেছিল ‘ম্যানস ক্রুয়েলিটি টু ম্যান’। উল্লেখযোগ্য ‘‌ডেইস অফ গ্লোরি’‌ এবং ‘‌মওর্নিং এন মাস’‌–এর মতো ছবি।

শুধু ছবি আঁকাই নয়, সতীশ গুজরালের একাধারে ছিলেন ম্যুরালিস্ট, পেইন্টার, আর্কিটেক্ট এবং ডিজাইনার। পাশাপাশি কবিতা প্রেমীও ছিলেন সতীশ গুজরাল। অনুপ্রেরণা পেয়োছিলেন ফইজ আহমেদ ফইজ এবং মির্জা গালিবের লেখা থেকে।

১৯২৫ সালে লাহোরে জন্ম সতীশ গুজরালের। পরবর্তীকালে লাহোর থেকে সিমলায় চলে আসেন। পদ্মভূষণেও ভূষিত হয়েছিলেন সতীশ গুজরাল নিজেকে পুরোপুরি ডুবিয়ে দেন পেইন্টিংয়ের কাজে। তাঁর মৃত্যুতে ভারতীয় শিল্প ও স্থপত্যে একটি যুগের অবসান ঘটল।