রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে তথ্য-পরিসংখ্যান তুলে ধরে জবাবি ফেসবুক পোস্ট মমতার

করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে শুরুটা করেছিলেন সাড়া জাগিয়ে। তাঁর কট্টর সমালোচকরাও প্রকাশ্যে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছিলেন। ধন্যবাদ জ্ঞাপন থেকে কৃতজ্ঞতা, গোটা বাংলার মানুষ কুর্নিশ জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এখনও বুক চিতিয়ে তাঁর সেই লড়াই জারি। তবে পরিস্থিতি আগের চেয়ে অনেক কঠিন। এখন ধীরে ধীরে করোনা মোকাবিলায় তাঁর সরকারের কাজ নিয়ে বিরোধীরা প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে। শুরু হয়েছে তথাকথিত সেই রাজনৈতিক কচকচানি। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ও সরকারের বিরুদ্ধে নিয়মিত সলতে পাকাচ্ছেন।

এমন পরিস্থিতিতে এবার সমালোচনার জবাব দেওয়া শুরু করলেন মুখ্যমন্ত্রী। করোনা মোকাবিলায় রাজ্য সরকার কি সর্বক্ষেত্রে সঠিক পদক্ষেপ নিচ্ছে? সঠিক তথ্য কি আদৌ দেওয়া হচ্ছে? তা নিয়েই এবার নিজের ফেসবুক পেজে পরিসংখ্যান ই তথ্য তুলে ধরে সেইসব প্রশ্নের উত্তর দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ঠিক কী কী তুলে ধরলেন মুখ্যমন্ত্রী?

১) কোনও মানুষের জ্বর-কাশি-শ্বাসকষ্ট রয়েছে কিনা, তা ঘরে ঘরে গিয়ে পরীক্ষা করার ব্যবস্থা করেছে রাজ্য সরকার। গত এক মাস ধরে গোটা রাজ্যজুড়ে চলছে এই প্রক্রিয়া।

২) করোনার উপসর্গ খতিয়ে দেখার জন্য সরকার ইতিমধ্যেই ৬০ হাজার আশাকর্মী নিয়োগ করেছে। তাঁদের বিশেষভাবে প্রশিক্ষণও দেওয়া হয়েছে। তাদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে কাজ করছে স্বাস্থ্যকর্মীরাও।

৩) থার্মাল গান ইত্যাদি নিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে পরীক্ষা করে দেখছেন আশাকর্মী ও স্বাস্থ্য কর্মীরা। তার ভিত্তিতে নিয়মিত স্বাস্থ্য ভবনে রিপোর্ট তৈরি করা হচ্ছে। যদি কারও লক্ষণ সন্দেহজনক মনে হয়, সঙ্গে সঙ্গেই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে।

৪) গত ৭ এপ্রিল থেকে আজ ৩ মে পর্যন্ত মোট ৫.৫৭ কোটি মানুষের স্বাস্থ্যের তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ৮৭২ জনের শ্বাসকষ্টের সমস্যা ছিল। ৯১,৫১৫ জনের ছিল ইনফ্লুয়েঞ্জা উপসর্গ। সকলকেই স্বাস্থ্য পরামর্শ ও চিকিৎসার পরিষেবা দেওয়া হয়েছে।

৫) এদের মধ্যে ৩৭৫ জন নানা ধরণের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ৬২ জনের রিপোর্ট কোভিড-১৯ পজিটিভ এসেছে।

৬) বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহের এই কাজ ধারাবাহিক ভাবে চলবে।

দেখে নিন মুখ্যমন্ত্রীর ফেসবুক পোস্ট—

Massive door-to-door surveillance has been ongoing since the past one month to identify Severe Acute Respiratory Illness…

Posted by Mamata Banerjee on Tuesday, May 5, 2020