‘দুয়ারে সরকার’ এবার সত্যিই গৃহস্থের দরজায়

রাজ্য সরকারের “দুয়ারে সরকার” প্রকল্প রাজ্যের প্রতিটি মানুষের কাছে পৌঁছানোর উদ্দেশ্যে আরও এক ধাপ এগোল প্রশাসন। এবার দুয়ারে দুয়ারে গিয়েই ‘স্বাস্থ্যসাথী’ প্রকল্পের ফর্ম বিলি করবেন সরকারি কর্মীরা। নবান্ন থেকে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্বাচনের আগে রাজ্যজুড়ে ব্যপক সাড়া ফেলেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘দুয়ারে সরকার’ প্রকল্প।

আরও পড়ুন : “প্রেস, মিডিয়ার একটা ইজ্জত আছে” নাম না করে বার্তা তৃণমূল নেত্রীর

সম্প্রতি প্রতি পরিবারের জন্য স্বাথ্যসাথী প্রকল্পের ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ‘স্বাস্থ্যসাথী’ কার্ডে রাজ্যের সরকারি, বেসরকারি হাসপাতালগুলিতে চিকিৎসার খরচ ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পাওয়া যাবে। পরিবারের প্রবীণা সদস্যের নামে হবে কার্ড। ‘খাদ্যসাথী’ ও ‘কৃষকবন্ধু’ প্রকল্পের চাহিদাও রয়েছে। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে ‘স্বাস্থ্যসাথী’ প্রকল্পের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। সরকারি সূত্রে খবর, এক সপ্তাহের মধ্যেই ২২ লক্ষ মানুষ বিভিন্ন পরিষেবার জন্য আবেদন জানিয়েছেন ক্যাম্পগুলিতে।

চাহিদা বুঝে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে সরকারি শিবিরের সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছে। বিগত প্রায় এক সপ্তাহ ধরেই এই সরকারি পরিষেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলিতে ভিড় উপচে পড়ছে। সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলির সামনে লম্বা লাইন এড়াতে এবার থেকে বাড়ি বাড়ি ঘুরে স্বাস্থ্য সাথী ফর্ম বিলি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফে। মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় আরও জানিয়েছেন, ফর্ম হাতে পেয়ে তা পূরণ করে সরকারি ক্যাম্পে গিয়ে জমা দিতে হবে। প্রয়োজনে অনলাইন থেকেও ফর্ম ডাউনলোড করা যাচ্ছে।