প্রতিবাদ করায় শাসকদের রোষের মুখে সাংবাদিক, হল ফাঁসি

প্রতিবাদী হলেই কি রোষের মুখে পড়তে হয়? বাস্তব কিন্তু তাই বলছে। এক প্রতিবাদী সাংবাদিককে ফাঁসি দিল ইরান সরকার। ইরান সরকারের বিরুদ্ধে তাঁর অভিযোগ ছিল, ‘পৃথিবীতে দুর্নীতি’ (Corruption on Earth)। এরপরই সেখানকার সরকারি সংবাদ সংস্থা ইরনার (IRNA) তরফে জানা গিয়েছে, প্রতিবাদী সাংবাদিক রুহোল্লা জামকে (Journalist Ruhollah Zam) ফাঁসি দিল ইরান (Iran) সরকার।

জানা গিয়েছে, বছর তিনেক আগে ইরানের বর্তমান শাসকদের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানান হাজার হাজার মানুষ। এরপরই কট্টর ধর্মান্ধতা, দেশের অর্থনৈতিক দুরবস্থার বিরুদ্ধে এই আন্দোলন মোকাবিলা করে শাসক দলের নেতারা। শাসক দলের রোষের মুখে পড়েন ফ্রান্সে স্বেচ্ছা-নির্বাসনে যাওয়া সাংবাদিক রুহোল্লা। জাম টিভি নামে তাঁর চ্যানেলে সরকার-বিরোধী প্রচার ছাড়া জনরোষে উস্কানি দিয়েছে বলে অভিযোগ এনেছিল ইরান সরকার। আমাদনিউজ নামে রুহোল্লার টেলিগ্রাম (Telegram) চ্যানেলটির ফলোয়ার্স প্রায় ১০ লক্ষ ছাড়িয়েছিল। ২০১৯-এর সেপ্টেম্বরে (September) ইরানের গুপ্তচরেরা রুহোল্লা-কে ইরাক থেকে তুলে নিয়ে আসে। এরপর তাঁর বিচার হয় ধর্মীয় আইনে।

ইরানে ‘পৃথিবীতে দুর্নীতি’-র অভিযোগ আনা হয় সরকার পরিবর্তন বা অভ্যুত্থানের নেতাদের বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগ আনা হয়েছিল শাসক দলের বিরুদ্ধে সরব সাংবাদিক রুহোল্লা জামের বিরুদ্ধেও। এরপর নিম্ন আদালত দ্রুত বিচার করে। তাঁকে ফাঁসির আদেশ দেয় আদালত। সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court) জুনে (June) তা বহাল রাখে। ফরাসি সরকার এই রুহোল্লার প্রাণদণ্ডের বিরোধিতা করে জামকে মুক্তি দেওয়ার আবেদন করেছিল তেহরানের কাছে। কিন্তু কিছুতেই কিছু হয়নি। শনিবার (Saturday) সেই প্রতিবাদী সাংবাদিক রুহোল্লা জামকে ফাঁসিই দিল ইরান সরকার।

আরও পড়ুন-হাসিনা-মোদি বৈঠক : গুরুত্ব পাবে কোভিড টিকা ও মুজিববর্ষ উদযাপন