ফ্রেরুয়ারিতে ২দিনের সফরে ফের নন্দীগ্রামে যেতে পারেন মমতা

এখনও নির্বাচনের (Assembly Election) দিনক্ষণ ঘোষণা হয়নি। কিন্তু রাজ্যের ২৯৪টি আসনের মধ্যে ইতিমধ্যেই একটি আসনে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছেন তৃণমূল (TMC) নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। সেই আসন রাজ্য রাজ্য রাজনীতিতে একটি গুরুত্বপূর্ণ আসন। হ্যাঁ, বিধানসভা কেন্দ্রটি হলো পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রাম (Nandigram)। যাকে বলা হয় পরিবর্তনের অপর নাম। একুশের নির্বাচনের আগে ফের শিরোনানে নন্দীগ্রাম। এবং এবার সেখানে শাসক তৃণমূলের প্রার্থী খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

গত সোমবার নন্দীগ্রামে গিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী। শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) দল থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর তাঁর বিধানসভা কেন্দ্রের তেখালি বাজার এলাকায় প্রথম জনসভা করেন মমতা। সেই সভার মঞ্চ থেকে একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের (TMC) ”প্রথম প্রার্থী’র নামও ঘোষণা করে দেন তিনি। বলেন, ”আচ্ছা, আমি-ই যদি নন্দীগ্রামে দাঁড়াই কেমন হয়? এটা আমার আবেগের জায়গা। ভবানীপুরকেও আমি নেগলেক্ট করছি না। ওটাও আমার আবেগের জায়গা। ওখানেও ভালো প্রার্থী দেব। তবে সুব্রত বক্সীকে বলব, নন্দীগ্রামে আমার নামটা চূড়ান্ত করে দিতে।”

একইসঙ্গে তিনি জানিয়ে দেন, “ভবানীপুরের মানুষকেও আমি কষ্ট দেব না। ম্যানেজ করতে পারলে নন্দীগ্রাম ও ভবানীপুর, দুই জায়গা থেকেই আমি দাঁড়াব। নন্দীগ্রামে আমি দাঁড়াব-ই।” শুভেন্দুর (Suvendu Adhikari) পাল্টা চ্যালেঞ্জ করে বলেন, “দুই জায়গায় দাঁড়ালে চলবে না। নন্দীগ্রামেই দাঁড়াতে হবে। আর আমাদের দল ঠিক করবে, নন্দীগ্রামে বিজেপি প্রার্থী কে হবে।”

আরও পড়ুন:GTA চেয়ারম্যান অনীত থাপা নেপালের নাগরিক! প্রকাশিত খবর ঘিরে জোর জল্পনা

চ্যালেঞ্জ-পাল্টা চ্যালেঞ্জ-এর মাঝেই ফ্রেরুয়ারির শুরুতে জনসংযোগ কর্মসূচিতে ফের নন্দীগ্রামে (Nandigram) যেতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। এবার আর সভা করে ফিরে আসা নয়, দু’দিন নন্দীগ্রামে থাকবেন তিনি! নিজে বাড়ি বাড়ি গিয়ে সরকারের উন্নয়নমূলক কাজ তুলে ধরবেন তাঁরা। শুনবেন সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগও। সূত্রের খবর, দলের নয়া কর্মসূচি মাধ্যমে আগেই নন্দীগ্রামে জনসংযোগ সেরে ফেলতে চাইছেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

Advt