ফের গৃহবন্দি মেহবুবা-ওমর আবদুল্লা! ক্ষুব্ধ প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীরা

ফের জম্মু-কাশ্মীরের তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি, ফারুখ আবদুল্লা, ওমর আবদুল্লা এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যদেরও নতুন করে গৃহবন্দি করা হয়েছে বলে অভিযোগ। তা নিয়ে আরও একবার সরগরম উপত্যকার রাজনীতি।

শনিবার তাঁদের গৃহবন্দি করা নিয়ে প্রথমে মুখ খোলেন পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নেত্রী মেহবুবা মুফতি। রবিবার ন্যাশনাল কনফারেন্স-এর নেতা ওমর আবদুল্লা টুইট করে লেখেন, ‘২০১৯-এর অগাস্টের পর এটাই নয়া কাশ্মীর। কোনও ব্যাখ্যা ছাড়াই আজকাল গৃহবন্দি করা হয় আমাদের। পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে আমার বাবা, যিনি একজন সাংসদ, তাঁকে এবং আমাকে তো গ্রেফতার করা হয়েইছে, আমার বোনের বাড়িতে গিয়ে তাঁকে এবং তাঁর ছেলেমেয়েও বন্দি করা হয়েছে’। তাঁর বাড়ির বাইরে মোতায়েন সেনা কনভয়ের ছবিও টুইটারে পোস্ট করেন ওমর আবদুল্লা।

আরও পড়ুন-বিজেপিতে যোগ দেওয়াতে টোপ দিয়েছিলেন দিলীপ, দাবি ছত্রধর মাহাতোর

ওমরের টুইটের পর শ্রীনগর পুলিশের নামে তৈরি একটি টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে দাবি করা হয়, ‘পুলওয়ামা হামলার দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে নিরাপত্তার খাতিরেই তাঁদের বাড়িতে থাকতে বলা হয়েছে। আগে থাকতে তা সকলকে জানানো হয়েছিল।’ কিন্তু শ্রীনগর পুলিশের ওই টুইট হ্যান্ডলটি ‘ভেরিফায়েড’ নয় বলে জানিয়ে দেন ওমর। একই সঙ্গে তিনি দাবি করেন কোনও রকম চিঠি দেওয়া হয়নি তাঁদের। তাঁর উদ্দেশে ওই চিঠি লেখা হলে তাতে কোথাও তাঁর নাম উল্লেখ করা নেই কেন? সেই প্রশ্নও তোলেন আবদুল্লা। রবিবার টুইটারে ওমর আরও লেখেন, ‘গণতন্ত্রের নয়া রূপ দেখাচ্ছে, কোনও কারণ ছাড়াই আমাদের বাড়িতে আটকে রাখা হবে। শুধু তা-ই নয়, আমাদের বাড়িতে যাঁরা কাজ করেন, তাঁদেরও ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। এর পরও আমি রেগে না গেলে সেটা কি অপরাধ?’

শনিবারই সংসদে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ঘোষণা করেন, সময় এলেই জম্মু-কাশ্মীরকে রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়া হবে। তিনি দাবি করেন, উপত্যকা বর্তমানে অনেকটাই ‘শান্ত’।

Advt