মইদুলের মৃত্যুর ‘সঠিক তদন্ত’ চেয়ে দু’দিন থানা ঘেরাও-রেল অবরোধ SFI-DYFI’র

বাম ছাত্র-যুবদের নবান্ন অভিযানে আহত যুবনেতা মইদুল ইসলাম মিদ্দা মৃত্যুতে ‘সঠিক তদন্ত’ চেয়ে ফের পথে নামছে SFI-DYFI। জানা যাচ্ছে, আগামী ১৭ ও ১৮ ফেব্রুয়ারি রাজ্যব্যাপী থানা ঘেরাও কর্মসূচি ও রেল অবরোধের ডাক দিয়েছে বাম ছাত্র-যুবরা। পাশাপাশি বাম সূত্রে খবর, কলকাতা হাইকোর্টে দ্বারস্থ হয়ে মইদুলের মৃত্যুর প্রকৃত তদন্তের দাবি করবেন তারা।

মইদুলের মৃত্যুর প্রতিবাদে সোমবার মৌলালির সামনে বাম ছাত্র-যুবরা বিক্ষোভ দেখায়। সেখানে পুলিশকে মারধর এবং উর্দি ছেঁড়ার মতো ঘটনার চোখে পড়ে। এই অভিযোগের ভিত্তিতে এসএফআই রাজ্য সম্পাদক সৃজন ভট্টাচার্য-সহ ২৫০ জনের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই মামলা রুজু করেছে কলকাতা পুলিশ। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৩, ৩২৪, ৩৩২ ধারা অর্থাৎ সরকারি কর্মীদের কাজে বাধা দেওয়া, নিগ্রহের মতো অভিযোগে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে। পাল্টা পুলিশি নির্যাতনের প্রতিবাদ করে সরব হয়েছে বামপন্থী এই ছাত্র সংগঠন। সোমবার ক্যামেরার সামনে সৃজন ভট্টাচার্য বলেছিলেন, ‘নিগৃহীত পুলিশকর্মীদের উদ্ধারে তিনি এবং আরও কয়েকজন উদ্যোগ নিয়েছিলেন।’

Advt

আরও পড়ুন-রাজ্যে শিক্ষার পরিবেশ ফেরানোর কথা ভাবছে বিজেপি, ২ টাকার বিনিময়ে বাগদেবীর মূর্তি বিলি

প্রসঙ্গত, চাকরি, শিক্ষা-সহ একাধিক দাবিতে ১১ ফেব্রুয়ারি নবান্ন অভিযানের ডাক দিয়েছিল বাম ছাত্র সংগঠন। বামেদের অভিযানকে কেন্দ্র করে রীতিমতো উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল কলকাতা। পুলিশের লাঠি, জলকামানের আঘাতে প্রায় ৪০ জন অসুস্থ হয়েছিলেন। তাঁদের মধ্যেই ছিলেন বাঁকুড়ার মইদুল ইসলাম মিদ্দা। গুরুতর জখম মিদ্দার লড়াই শেষ হয় সোমবার। এরপরই বিক্ষোভের আঁচ শহর ছেড়ে পার্শ্ববর্তী জেলাতেও ছড়িয়ে পড়ে।