আগে অভিষেকের সঙ্গে লড়ুন, সাহস থাকলে নাম বলুন: শাহকে চ্যালেঞ্জ মমতার

আগে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banarjee) সঙ্গে লড়াই করুন। সাহস থাকলে নাম নিয়ে কথা বলুন অমিত শাহ (Amit Shsh)। বৃহস্পতিবার, পৈলানের সভা থেকে ‘ভাইপো’ কটাক্ষ নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্টমন্ত্রী অমিত শাহকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Bebarjee)। এবারের বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারের শুরু থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে নানা দুর্নীতির অভিযোগ তুলে কটাক্ষ করছেন বিজেপি (Bjp) নেতৃত্ব। এরজন্য তাঁদের আইনি নোটিশও দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আক্রমণ অব্যাবত। এতদিন বিষয়টিকে বিশেষ পাত্তা না দিলেও, এবার এই আক্রমণের জবাব দিলেন স্বয়ং তৃণমূল (Tmc) নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

পৈলানের কর্মী সম্মেলন থেকে তিনি নিশানা করেন অমিত-পুত্র জয় শাহকে। মমতা বলেন, অমিত শাহের ছেলেও তাঁর ভাইপো হয়। প্রশ্ন তোলেন, কীভাবে অল্প সময়ের মধ্যে কোটি কোটি টাকার মালিক হলেন জয়, কোন যোগ্যতায় ক্রিকেট বোর্ডে জায়গা হল তাঁর? এ দিন পৈলানে দাঁড়িয়ে মমতা বলেন, ‘‘খালি পিসি-ভাইপো করছ। আগে ভাইপোর সঙ্গে লড়াই করে দেখাও। অভিষেকের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করছ তা প্রমাণ কর’’। মমতা স্পষ্ট জানান, দুর্নীতির অভিযোগ থেকে অমিত শাহর ছেলেও রক্ষা পাবেন না। “নিজের ছেলেকে আড়াল করবেন আর বাকিদের ভয় দেখাবেন’’

বিজেপি নেতৃত্বের মুখে নির্বাচনী প্রচারে বার বার উঠে এসেছে তৃণমূলের পরিবারেরতন্ত্রের অভিযোগ। তা নিয়েও এ দিন গেরুয়া শিবিরকে আক্রমণ করেন মমতা। বলেন, অভিষেক তাঁর কাছে প্রাধান্য পায় না। তাঁকে উপ-মুখ্যমন্ত্রী, দলের সভাপতি কিছুই করেননি। সাংসদ হতেও বারণ করেছেন। বলেছিলেন রাজ্যসভায় পাঠানো তাঁর হাতের মুঠোয় ছিল। কিন্তু অভিষেক নিজে মানুষের দ্বারা নির্বাচিত হয়ে কাজ করতে চেয়েছিলেন। এ প্রসঙ্গে মমতা স্মৃতিচারণা করেন। বলেন, “হাজরায় যখন আমাকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়েছিল, ও তখন ছোট। মাথায় ব্যান্ডেজ দেখে একাই কংগ্রেসের পতাকা নিয়ে মিছিল করত। স্লোগান দিত, দিদিকে কেন মারলে জবাব দাও। তার জন্যই ওকে রাজনীতিতে এনেছি। তোমাদের ছেলেমেয়েরা বিদেশে চলে যায়। আমাদের ছেলেমেয়েরা এই মাটিতে থেকে লড়াই করে।’’ এরপরেই হুঁশিয়ারি দিয়ে তৃণমূল নেত্রী বলেন, “আগুন নিয়ে খেলবে না। আমার সঙ্গে পেরে উঠবে না”।

মমতা অভিষোগ করেন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে দুর্ঘটনা ঘটিয়ে মেরে ফেলার চেষ্টা হয়। আজও তাঁর একটা চোখে সমস্যা রয়েছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। “আমার পরিবার এমন কোনও কাজ করবে না, যাতে বাংলার মানুষের ক্ষতি হবে। প্রতিদিন আমার জন্য অভিষেককে কথা শুনতে হয়। আমার খারাপ লাগে। আমার বাড়ির মেয়েদের আর ছোটদের গালাগালি দেবে না”।

আরও পড়ুন:এবারে বাংলাকে রক্ষা করার লড়াই, মাঠে-ময়দানে বুক চিতিয়ে লড়ব: অভিষেক

এর আগেও অনেকবার বিজেপি অভিষেককে বিভিন্ন ভাবে টার্গেট করেছে। তার জবাবও দিয়েছেন তৃণমূল সাংসদ। কিন্তু এইবারই অভিষেককে কটাক্ষের জবাব দিয়ে গেরুয়া শিবিরের দিকে রীতিমতো চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন মমতা।

Advt