এক মাসের ব্যবধানে ফের কেঁপে উঠল কর্ণাটক, মৃত ৬

ফের ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল কর্নাটকের চিক্কাবল্লাপুর জেলা। চিক্কাবল্লাপুর সংলগ্ন হিরেনাগাভেলি গ্রামে একটি খাদানে এদিন বিস্ফোরণ ঘটে। জিলেটিন স্টিক ফেটেই বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে জানা গেছে। এই ঘটনায় কমপক্ষে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে দু’জনকে।গোটা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন কর্নাটকের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে সুধাকর। তিনি বলেন, ‘বেআইনি ভাবে বিস্ফোরকগুলি রাখা ছিল। যারা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

জানা গিয়েছে, সোমবার রাতে কর্ণাটকের চিক্কাবল্লাপুর জেলায় গাড়িতে করে জিলেটিন স্টিক নিয়ে যাওয়ার সময়ই বিস্ফোরণ ঘটে। পুলিশ সূত্রে খবর, বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গাড়িটি। ছিন্নভিন্ন হয়ে গিয়েছে দেহগুলি। মৃতদেহগুলি এখনও চিহ্নিত করা যায়নি। ওই বিস্ফোরকগুলি বেআইনিভাবে জমা করা হয়েছিল বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পা। এই ঘটনায় দ্রুত তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি, এই ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করার আশ্বাসও দিয়েছেন ইয়েদুরাপ্পা। এদিকে, বিস্ফোরণের ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে প্রধানমন্ত্রী লেখেন, “কর্ণাটকের বিস্ফোরণে প্রাণহানি হওয়ায় আমরা মর্মাহত। মৃতদের পরিবারের প্রতি আমি সমবেদনা প্রকাশ করছি। আহতরা যাতে দ্রুত সেরে ওঠে তার জন্য প্রার্থনা করছি।”

উল্লেখ্য, এর আগেও গত জানুয়ারি মাসেই কর্ণাটকের এক খাদানে বিস্ফোরণ হয়েছিল। সেবার ভয়ংকর ডিনামাইট বিস্ফোরণে (Dynamite blast) কেঁপে উঠেছিল শিবমোগা। ওই বিস্ফোরণে অন্তত আটজনের মৃত্যু হয়। জানা গিয়েছিল, ডিনামাইট বোঝাই একটি লরি এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময় আচমকাই তাতে বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের আঘাতে লরিটি কার্যত উড়ে যায়। প্রবল শব্দে ঝনঝন করে ভেঙে পড়ে এলাকার বাড়িগুলির কাঁচ। প্রাথমিক ভাবে মনে করা হয়েছিল, পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু পরে মৃতের সংখ্যা বেড়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে আটজনের দেহ উদ্ধার করা হয়।

Advt