শুক্রবার বনধের মুখে দেশ, প্রভাব পড়তে পারে যান চলাচলে

শুক্রবার ভারত বনধের ডাক দিয়েছে দ্য কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স। ভারত বনধের জেরে গড়াবেনা গাড়ির চাকা। সমস্ত বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকতে পারে। পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি, GST ব্যবস্থা পর্যালোচনা, E-Way Bill-সহ একাধিক দাবিতে ভারতে বনধ ডাকা হয়েছে।

প্রায় ৪০ হাজার ব্যবসায়ী সমিতি এই বনধকে সমর্থন জানিয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। বনধের জেরে পথে নামবে না কয়েক লক্ষ ট্রাক। মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানার ট্রাক মালিকরাও বনধকে সমর্থন জানিয়েছেন। এই প্রসঙ্গে বম্বে গুডস ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েসনের সম্পাদক সুরেশ খোসলা বলছেন, ‘পরিবহন সংক্রান্ত বিষয়ে একাধিক বার সরকারকে পিটিশন দিয়েছে BGTA। আমাদের কর্মচারিরাও সরকারকে তাঁদের সমস্যার কথা নিয়মিত জানিয়েছেন। তাতে কোনও লাভ হয়নি।’ অল ইন্ডিয়া ট্রান্সপোর্টার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের জাতীয় সভাপতি মহেন্দ্র আর্য বলেন, প্রতীকী প্রতিবাদ হিসেবে সমস্ত পরিবহন সংস্থাকে তাদের গাড়ি পার্ক করে রাখার অনুরোধ জানানো হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ‘সমস্ত ট্রান্সপোর্ট গোডাউনে ব্যানার টাঙিয়ে প্রতিবাদ জানানো হবে।’

আরও পড়ুন-পেট্রোপণ্যের অত্যাধিক দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর

শুক্রবারের ভারত বনধে অংশ নিচ্ছে ALL INDIA FMCG MANUFACTURERS &DISTRIBUTORS, ফেডারেশন অফ অ্যালুমিনিয়াম ইউটেনসিলস ম্যানুফেকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন, নর্দার্ন ইন্ডিয়া স্পাইসেস ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশন, অল ইন্ডিয়া কসমেটিক ম্যানুফেকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন, অল ইন্ডিয়া উওমেন এন্টারপ্রনার্স অ্যাসোসিয়েশন ও অল ইন্ডিয়া কম্পিউটার ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশনস।

Advt