টিকিট না পেয়ে বিজেপি ছাড়লেন বাগদা’র বিধায়ক দুলাল বর

শেষমুহুর্ত পর্যন্ত ঝুলিয়ে রেখেও বিধানসভা ভোটে বিজেপি প্রার্থীই করেনি বাগদার বিদায়ী বিধায়ক দুলাল বরকে৷ এই দুলাল বিজেপির SC-ST মোর্চার রাজ্য সভাপতিও৷

প্রার্থী তালিকায় নাম না থাকার পরেও ২৪ ঘন্টা চুপ ছিলেন তিনি৷ বুধবার দুলাল বর (Dulal Bar)
গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে পাকাপাকিভাবে সম্পর্ক ছিন্ন করলেন৷ তার আগে ইস্তফা দেন বিজেপির (BJP) SC-ST মোর্চার রাজ্য সভাপতির পদে৷ দলীয় টিকিট না পাওয়ার কারনেই এই ইস্তফা৷

বুধবার এক সাংবাদিক বৈঠকে দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন তিনি। গুরুতর অভিযোগ তুলে বলেছেন, “পরিবারতন্ত্র ও টাকার বিনিময়ে বঙ্গ-বিজেপির টিকিট বিক্রি করা হয়েছে”। সূত্রের খবর, ‘বিদ্রোহী’ দুলালকে কলকাতায় ডেকে পাঠিয়েছে রাজ্য বিজেপির নেতারা৷

প্রসঙ্গত, ২০১৬-র বিধানসভা নির্বাচনে নির্দল হিসাবে বাগদা থেকে জিতেছিলেন দুলাল বাবু। পরে তিনি যোগ দেন তৃণমূলে। এর পর মুকুল রায়ের হাত ধরে বিজেপিতে যান দুলালবাবু। শোনা যাচ্ছে, এই মুহুর্তে দিল্লির নেতাদের ‘গুডবুকে’ থাকা স্থানীয় সাংসদ শান্তনু ঠাকুরের পরামর্শেই দুলালকে এবার প্রার্থী করেনি বিজেপি৷ শান্তনুর সঙ্গে দুলালের সম্পর্ক কোনও কালেই ভাল নয়।

প্রথম প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পরেই বিজেপির অন্দরে ক্ষোভ শুরু হয়৷
দ্বিতীয় প্রার্থীতালিকা প্রকাশের পর তো সেই ক্ষোভ পুরোপুরি বিক্ষোভে বদলে যায়৷ চরম আকার নেয় বিষয়টি। জেলায় জেলায় দলের পার্টি অফিসে ভাঙচুরও চলায় বিজেপি কর্মীরা। দলের টিকিট না পেয়ে বিক্ষুব্ধ হয়েছেন প্রায় প্রতিটি জেলার অসংখ্য নেতা- কর্মী। এবার সম্ভবত বিদায়ী বিধায়ক দলত্যাগের পথে দুলাল বর।
মঙ্গলবার প্রার্থীতালিকা প্রকাশের পর দেখা যায়, দুলালের কেন্দ্র বাগদা’য় বিজেপি প্রার্থী করেছে আর এক বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাসকে৷ তিনি বনগাঁ দক্ষিণের বিধায়ক ছিলেন। বাগদা কেন্দ্রের বিধায়ক দুলালবাবুর নাম ছেঁটে দেয় দল। এর পরই ঘনিষ্ঠ মহলে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন দুলালবাবু। এদিন সাংবাদিক সম্মেলন করে দুলালবাবু বলেন, “আমি টিকিট পাইনি সেটা বড় কথা নয়, SC-ST মোর্চার কোনও পদাধিকারীকেই টিকিট দেয়নি দল। এই মোর্চাকে সরাসরি অপমান করা হয়েছে। এভাবে অপমানিত হওয়ার পর পদে থাকার মানে হয়না৷ তাই আমি দলের পদ ছাড়ছি।”

এদিকে জানা গিয়েছে, বুধবার বনগাঁ মহকুমার বিভিন্ন এলাকায় বৈঠক করেন দুলালবাবুর অনুগামীরা। আলাদা মঞ্চ গড়ে উত্তর ২৪ পরগণার কয়েকটি আসনে বিজেপির বিরুদ্ধে প্রার্থী দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দুলাল- অনুগামীরা।

আরও পড়ুন:মমতাকে কুরুচিকর আক্রমণ দিলীপের, ‘বারমুডা’ পরার পরামর্শ

Advt