‘নন্দীগ্রামে সবার সব হিসাব পাল্টে দেবো’, প্রচারের তাপ বাড়ালেন আব্বাস সিদ্দিকি

সংযুক্ত মোর্চার আসন ভাগাভাগির সময়ে আব্বাস সিদ্দিকির ISF নন্দীগ্রাম আসনটি দাবি করেছিলো৷ কিন্তু পরে সেই দাবি থেকে সরে আসায় এবারের ভোটে রাজ্যের হাইভোল্টেজ কেন্দ্র নন্দীগ্রামে মোর্চার তরফে সিপিএম প্রার্থী মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়।

শুক্রবার ওই নন্দীগ্রামেই (Nandigram) পা রাখলেন আব্বাস (Abbasuddin Siddiqui)। মীনাক্ষীকেই (Minakshi Mukherjee) কেন ভোট দেওয়া দরকার, তা বোঝাতে এদিন আব্বাস বলেন, “এটা প্রমানিত, বিজেপিকে আটকেছে একমাত্র বামেরাই৷” আব্বাস বলেন, “৩৪ বছর ধরে বাংলায় বিজেপিকে আটকে রেখেছিলো বামেরা। তারপরই মাথাচাড়া দিয়েছে বিজেপি৷ তাই বিজেপি আটকাতে হলে নন্দীগ্রামে সিপিএমের মীনাক্ষীকে আর বাকি জায়গায় সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থীকে ভোট দিন।” আব্বাস বলেন, “এখানে প্রচারে ও প্রভাবে পিছিয়ে নেই জোটের বামপ্রার্থী মীনাক্ষী৷ অথচ এমন ভাব দেখানো হচ্ছে যেন অন্য দুই প্রার্থীই শুধু লড়ছে৷ এর জবাব দেবে নন্দীগ্রামের মানুষ৷ এখন কেউ ধারনা করতে পারছে না, সবার সব হিসাব উল্টে যাবে৷” তিনি এদিন ফের আওয়াজ তোলেন, “গোলামি নয় অধিকার চাই”৷ এদিন নন্দীগ্রামে ‘ভাইজান’ বলেন, “আমাদের প্রলোভন দেখিয়ে গোলাম করে রাখা হয়েছে। আমরা গোলামি চাই না , অধিকার চাই।”

আরও পড়ুন:কাল ভোটে সন্ত্রাস করতে পারে বিজেপি, কমিশনে নালিশ জানাল তৃণমূল

বৃহস্পতিবার নন্দীগ্রামের তেখালির মাঠে যোগী
আদিত্যনাথ সভা করে হিন্দুত্বের বার্তা দেন৷ শনিবার নন্দীগ্রামে আব্বাস সিদ্দিকি সংখ্যালঘু মুসলিমদের মনজয়ের লক্ষ্যেই বক্তব্য রেখেছেন। ২০১৯-এর লোকসভা ভোটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অকুন্ঠ সমর্থন করেছে সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্ক। বিধানসভা নির্বাচনে সেই ভোটব্যাঙ্কের কাছেই আব্বাস আহ্বান জানালেন বাম প্রার্থী মীনাক্ষীকে ভোট দেওয়ার৷

Advt