করোনা সতর্কতা: সরকারি অফিসে ৫০ শতাংশ হাজিরার নির্দেশ নবান্নের

রাজ্যে ফের উদ্বেগ বাড়াচ্ছে করোনা। সংক্রমণের সংখ্যায় প্রত্যেক দিনই ছাপিয়ে যাচ্ছে আগের দিনের পরিসংখ্যান। নতুন করে সংক্রমণ বাড়ায় উদ্বেগে চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞরা। নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে করোনা পরিস্থিতি, মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশ। পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমিত কলকাতায়। পরেই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনার পরে সংক্রমণের হারে তৃতীয় স্থানে হাওড়া। সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভারতে কি আরও ভয়াবহ হয়ে উঠছে করোনা? রাজ্যে করোনার এই বাড়বাড়ন্তে রাশ টানতে এবার আরও সতর্ক হল রাজ্য সরকার। সূত্রের খবর ফের ৫০ শতাংশ কর্মী নিয়ে সরকারি অফিস চালানোর নির্দেশ দিতে চলেছে নবান্ন। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই এই নিয়ম কার্যকর করতে চলেছে রাজ্য সরকার। সরকারি অফিসে করোনা সংক্রমন ঠেকাতে ও নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে কাজের জন্য ফের এই নিয়ম লাগু করতে চলেছে রাজ্য।

পাশাপাশি আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে হাসপাতাল এবং বেসরকারী হাসপাতালগুলিকে কোভিড মোকাবিলায় চূড়ান্ত প্রস্ততি নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে নবান্ন। ২০২০ সালে করোনা পরিস্থিতিতে রাজ্যে বিভিন্ন হাসপাতাল গুলিতে যে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছিল আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে সেগুলি আবার চালু করা হচ্ছে। বেড বাড়ানো থেকে শুরু করে আলাদা করোনা বিভাগ এবং পর্যাপ্ত অক্সিজেন যোগান, সবগুলিই দ্রুত সেরে ফেলার নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য হফতর। এছাড়াও রাজ্যে টেস্ট বাড়ানোর জন্য জোর দেওয়া হচ্ছে। এরই সঙ্গে মাস্ক ও গ্লাভস ব্যবহারে জোর দেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন- “রিক্সাওয়ালা প্রার্থীর প্রচারে গিয়ে মমতা কী বললেন? জানলে আপনিও গর্বিত হবেন!

Advt