নয়া রেকর্ড সুপ্রিম কোর্টের, প্রথমবার ১২ টি হাইকোর্টের জন্য ৬৮ জন বিচারপতির নাম প্রস্তাব

নয়া রেকর্ড সুপ্রিম কোর্টের। দেশের ১২টি হাইকোর্টের জন্য একসঙ্গে ৬৮ জন বিচারপতির নাম প্রস্তাব। এই প্রথমবার ৬৮ জন বিচারপতির নাম একসঙ্গে ঘোষণা করল দেশের শীর্ষ আদালত। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এন ভি রমনার নেতৃত্বাধীন কলেজিয়াম এই ৬৮ জন বিচারপতির নাম প্রস্তাব করে।

২৫ অগাস্ট এবং ১ সেপ্টেম্বর বৈঠক করে কলেজিয়াম। সেখানে প্রথমে ১১২ জন বিচারপতির নাম শর্টলিস্ট করা হয়েছিল। সেখান থেকে ৬৮ জনের নাম চূড়ান্ত করে প্রস্তাব করে কলেজিয়াম।

আরও পড়ুন: ভবানীপুরসহ বঙ্গে ৩ কেন্দ্রে ৩০ সেপ্টেম্বর উপনির্বাচন, ঘোষণা কমিশনের

এই প্রথম এতজন বিচারপতির নাম একসঙ্গে ঘোষণা করল শীর্ষ আদালত। প্রধানবিচারপতি এনভি রমান্নার নেতৃত্বাধীন কলেজিয়াম এই ৬৮ জন বিচারপতির নাম প্রস্তাব করে। গত ২৫ অগাস্ট এবং ১ সেপ্টেম্বর বৈঠক করেছিল কলেজিয়াম। তাতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রথমে ১১২ জনের নাম শর্ট লিস্ট করা হয়েছিল। সেখান থেকে ৬৮ জনের নাম চূড়ান্ত করে প্রস্তাব করে কলেজিয়াম।

১২ হাইকোর্টের নাম হল- কলকাতা, এলাহাবাদ, রাজস্থান, জম্মু-কাশ্মীর, ঝাড়খন্ড, মাদ্রাজ, মধ্যপ্রদেশ, কর্ণাটক, পাঞ্জাব এবং হরিয়ানা, কেরল, ছত্রিশগড় এবং অসম।

উল্লেখ্য, কলকাতা হাইকোর্টের কোনও প্রধান বিচারপতি এখনও নেই। ভার প্রাপ্ত প্রধান বিচারপতিই কাজ করছেন। প্রধান বিচারপতি একাধিক হাইকোর্টে না থাকায় অনেক মামলার ক্ষেত্রেই সমস্যা হচ্ছে। একাধিক মামলা পেন্ডিং রয়েছে। সেই কারণেই দ্রুত এই হাইকোর্টগুলির বিচারপতি নিয়োগ করতে বলা হয়েছে। আর তাই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন কলেজিয়াম প্রথমে ১১২ জন বিচারপতির নাম শর্ট লিস্ট করে। তারমধ্যে ৮২ জন বার এবং ৩১ জন জুডিশিয়াল সার্ভিসের। তারমধ্যে ১২ জন হাইকোর্টের বিচারপতি এবং ৪৪ জন বার ও ২৪ জন জুডিশিয়াল সার্ভিসের জন্য বাছাই করা হয়। তারমধ্যে তপশিলি উপজাতির মহিলা জুডিশিয়াল সার্ভিসের আধিকারিক মারালি ভাঙ্কুর নাম গুয়াহাটি হাইকোর্টের জন্য প্রস্তাব করা হয়েছে। তা চূড়ান্ত হলে তিনিই হবেন মিজোরামের প্রথম মহিলা বিচারপতি।

আরও পড়ুন: বৃদ্ধি নয়, দেশের অর্থনীতি তলানিতে যাচ্ছে: GDP রিপোর্ট ফুৎকারে উড়িয়ে দাবি কৌশিক বসুর

কলেজিয়ামে যে তিন সদস্য ছিলেন তাঁরা হলেন, সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এনভি রমনা, বিচারপতি ইউ ইউ ললিত, বিচারপতি এএম খানওয়ালিকর।

advt 19

 

Previous articleউত্তরবঙ্গকে উত্তরবঙ্গের চোখেই দেখতে চান মমতা, কিশোর সাহার কলম
Next articleশনিবার থেকে শুরু হলো বিশ্বভারতীর ফলপ্রকাশ এবং ভর্তি প্রক্রিয়া , ছাত্র বিক্ষোভও চলছে