অসমকে ‘পুলিশ স্টেট’ বানানো বন্ধ হোক, জিগনেস মামলায় রাজ্য প্রশাসনকে ভর্ৎসনা আদালতের

গুজরাতের কংগ্রেস বিধায়ক জিগনেশ মেবানিকে(Jignesh Mebani) মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারের(Arrest) অভিযোগে অসম পুলিশকে(Police) তীব্র ভর্ৎসনা করল অসমের একটি আদালত(Court)। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরোধিতায় টুইট করার অভিযোগে গুজরাতের কংগ্রেস বিধায়ক জিগনেশ মেবানিকে গ্রেফতার করেছিল অসম পুলিশ। শুধু তাই নয়, সেই মামলায় গত ২৫ এপ্রিল জামিন পাওয়ার পর এক মহিলা পুলিশের উপর হামলার অভিযোগ তুলে নতুন একটি মামলায় ফের গ্রেফতার করা হয় ওই কংগ্রেস বিধায়ককে। সেই মামলাতেই শুক্রবার অসমের বরপেটা আদালতে জামিন দেওয়ার পাশাপাশি পুলিশকে ভর্ৎসনা করল আদালত।

শুধু তাই নয়, এদিন বরপেটা আদালতের তরফে গুয়াহাটি হাইকোর্টকে পুলিশের এহেন বাড়াবাড়ির বিরুদ্ধে একটি পিটিশন বিবেচনা করার আবেদন জানিয়েছে। হাইকোর্টের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে, কোনও অভিযুক্তকে হেফাজতে নেওয়ার সময় পুলিশ যেন ক্যামেরা ব্যবহার করে, এবং পুলিশের গাড়িতেও সিসিটি ক্যামেরা ব্যবহার করার নির্দেশ দেওয়া হয়। পুলিশের আচরনের তীব্র নিন্দা করে এদিন বরপেটা আদালতের বিচারপতি বলেন, আমাদের কষ্টার্জিত গণতন্ত্রকে যেভাবে পুলিশ রাষ্ট্রে রূপান্তর করার চেষ্টা চলছে তা অকল্পনীয়। আদালত জানায়, যদি মামলাটিকে সত্য বলে ধরে নেওয়াও হয় এবং ম্যাজিস্ট্রেটের দ্বারা নথিভুক্ত করা মহিলার বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে… যা নয়, তাহলে আমাদের দেশের ফৌজদারি আইনকে পুনরায় লিখতে হবে। পাশাপাশি আরও জানানো হয়, একজন ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে দায়ের হওয়া এফআইআরের উল্টো গল্প বলেছেন ওই মহিলা কনস্টেবল। গোটা ঘটনা দেখে মনে হচ্ছে জিগনেশকে গ্রেফতার করতে তড়িঘড়ি একটি মামলা সাজানো হয়েছে। যা আদালত ও আইনি প্রক্রিয়ার অপব্যবহার।

আরও পড়ুন:আইনের উর্ধ্বে কেউ নয়, অপরাধীরা পালাতে পারবে না: এসপি কার্যালয়ের উদ্বোধনে স্পষ্ট বার্তা অভিষেকের

এদিকে এই ঘটনার প্রেক্ষিতে অসমের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে মেবানি অভিযোগ করেন, প্রধানমন্ত্রী মোদীর বিরুদ্ধে টুইট এবং পরবর্তীতে মহিলা কনস্টেবলের উপর কথিত হামলার জন্য তাকে গ্রেপ্তারের পিছনে বিজেপি ছিল। যা আদালত এখন “মিথ্যা মামলা” হিসাবে চিহ্নিত করেছে। তিনি বলেন, “ক্ষমতাসীন বিজেপি একজন মহিলাকে ব্যবহার করে আমার বিরুদ্ধে মামলা নথিভুক্ত করে ‘কাপুরুষোচিত কাজ’ করেছে। তবে আমি মাথা নত করব না।”




Previous article৩ চাকার অটো রিকশায় ফরাসী ছবির অভিনব প্রদর্শন