রামনবমীর দিন হিংসাত্মক কার্যকলাপের পুনরাবৃত্তি রোধে ব্যবস্থা নিল প্রশাসন,

মধ্যপ্রদেশের খরগাঁওয়ে (Khargone)রামনবমীর (RamNavami)মিছিলকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় হিংসার ঘটনা ঘটেছিল।গোষ্ঠীদ্বন্দের ফলশ্রুতি এই হিংসাত্মক কার্যকলাপ। সেই ঘটনার যাতে পুনরাবৃত্তি না ঘটে  তাই ঈদে কারফিউ(Curfew) জারি করতে চলেছে স্থানীয় প্রশাসন। অতিরিক্ত জেলা শাসক সুমের সিং জানিয়েছেন আগামী ২ এবং ৩ মে দু’ দিন সম্পূর্ণ কারফিউ থাকবে খরগাঁওয়ে।

তবে এই দুদিন উৎসবের কথা মাথায় রেখে দোকানপত্র খোলা থাকবে । বিশেষ ছাড় দেওয়া হবে পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে।  তারা পরীক্ষা দিতে পারবে। পরীক্ষার্থীদের বিশেষ পাস দেওয়া হবে। তবে ঈদের নমাজ বাড়িতেই পড়ার নির্দেশিকা জারি হয়েছে। এর পাশাপাশি প্রশাসন এই সিদ্ধান্ত  নিয়েছে যে অক্ষয় তৃতীয়া এবং পরশুরাম জয়ন্তী উপলক্ষেও কোনও অনুষ্ঠান করা যাবে না। তবে পরিস্থিতির বদল হলে এই নির্দেশও পরিবর্তিত হতে পারে বলেও জানা গেছে।

আজ রবিবার সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্তই স্বাভাবিক থাকবে পরিস্থিতি। তারপর থেকেই কারফিউ শুরু হবে।

প্রসঙ্গত গত ১০ এপ্রিল রামনবমীর দিন দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ  বাঁধে মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) খরগাঁওয়ে। শোভাযাত্রা লক্ষ্য করে পাথর ছোঁড়া হয়। সংঘর্ষে আহত হন প্রায় ২৫ জন। মৃত্যু হয়েছিল এক ব্যক্তির।তখন কিছুদিন কারফিউ জারি করা হয়েছিল শহর জুড়ে।

হিংসাত্মক ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে প্রায় ১২০ জনকে গ্রেফতার করা হয় এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি আটকাতেই ঈদ উপলক্ষে এই ব্যবস্থা নিল প্রশাসন। আগামীদিনে বেশ কয়েকটি উৎসব রয়েছে। সেই কারণেই সমস্ত জেলার দিকেই নজর রাখা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

 

 

 

 

 

Previous articleপাখির চোখ পঞ্চায়েত ভোট, নয়া তৃণমূল ভবনে মমতার প্রথম মেগা বৈঠক ৫ মে