Bengal: তীরে এসে তরী ডুবল বাংলার, এগিয়ে থেকেও সন্তোষ ট্রফি হাতছাড়া রঞ্জন ভট্টাচার্য্যের দলের

সোমবার সন্তোষ ট্রফির ফাইনালে টাইব্রেকারে কেরলের কাছে ৫-৪ গোলে হারল রঞ্জন ভট্টাচার্য্যের দল।

না হলো না। হল না বদলা নেওয়ার ম‍্যাচ। এগিয়ে থেকেও সন্তোষ ট্রফি (Santosh Trophy) হাতছাড়া বাংলার (Bengal)। সোমবার সন্তোষ ট্রফির ফাইনালে টাইব্রেকারে কেরলের (Keral) কাছে ৫-৪ গোলে হারল রঞ্জন ভট্টাচার্য্যের দল।

এযেন তীরে এসে ডুবল বাংলার তরী। ফাইনালে ফের টাইব্রেকারে কেরলের কাছেই হারতে হল বাংলাকে। নির্ধারিত সময়ে গোল শূন‍্য থাকার পর ম‍্যাচ গড়ায় এক্সট্রা টাইমে। ৯৬ মিনিটে দিলীপ ওরাও গোলে এগিয়ে যায় বাংলা। কিন্তু এই ব‍্যবধান বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি রঞ্জন ভট্টাচার্য্যের দল। এর ঠিক চার মিনিটের মাথায় গোলশোধ করে দেয় কেরলের বিবিন আজায়ান। যার ফলে ম‍্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানে বাজিমাত করে কেরল।

শুরু থেকেই আক্রমণ শুরু করে বাংলা। সুযোগ নষ্ট করেন ফরদিন আলি মোল্লা ও নবী হোসেন খান। কর্নার থেকে ফাঁকায় হেড দেওয়ার সুযোগ থাকলেও নবী মিস করেন। তাঁর হেড বাইরে চলে যায়। সাত মিনিটে পাল্টা আক্রমণ করে কেরল। সোহেল যোশির শট সেভ করেন প্রিয়ন্ত কুমার সিং। বিনো জর্জের স্ট্র্যাটেজি ছিল প্রতি আক্রমনে গোল তুলে নেওয়া। আর সেই কাজটাই করে গিয়েছেন সঞ্জু অজয় অ্যালেক্স, জিজো জোসেফরা। ২৩ মিনিটে বাংলার হয়ে গোলের সহজ সুযোগ নষ্ট করেন মহিতোষ রায়। ২৫ মিনিটের পর থেকেই খেলা ধরে নিতে শুরু করে কেরল। ৩৩ মিনিটে দারুণ সুযোগ পেয়েছিলেন কেরল ফুটবলার জয়রাজ। এরপর দারুণ সেভ করে বাংলাকে বাঁচান প্রিয়ন্ত কুমার সিং। প্রথমার্ধ গোলশূন্য ভাবেই শেষ হয়।

দ্বিতীয়ার্ধে দেখা যায় প্রথমার্ধের একেবারে উল্টো চিত্র। বিরতির পর খেলা শুরু হতেই আক্রমণ করতে থাকে কেরল। গোলের সুযোগ পেলেও বাংলার জালে বল ঢোকাতে পারেনি তারা।  তবে এক্সট্রা টাইমের ৯৬ মিনিটে বাংলার হয়ে গোল করেন দিলিপ ওঁরাও। ম্যাচের চার মিনিট বাকি থাকতে গোল শোধ করেন বিবিন আজায়ান। নউফলের ক্রস থেকে দারুণ হেডে গোল করেন বিবিন। একেবারে শেষ মিনিটে ডান দিক থেকে সুপ্রিয় পন্ডিতের ক্রস থেকে গোল পেয়ে যেতে পারত বাংলা। তবে স্ট্রাইকাররা ফের ব্যর্থ হন। ম্যাচ যায় পেনাল্টি শুট আউটে।

টাইব্রেকারে প্রথম শট নিতে যান বাংলার দিলীপ ওঁরাও মাঝে মেরে গোল করে যান দিলীপ। কেরলের হয়ে প্রথম শট নিতে আসেন সঞ্জু। গোল করেন তিনিও। প্রিয়ান্তকে উল্টো দিকে ফেলে গোল করেন কেরল ফুটবলার। বাংলার হয়ে দ্বিতীয় পেনাল্টি নেন সজল বাগ। বাইরে মারেন তিনি। ডান পায়ে মারা শট বার উঁচিয়ে চলে যায়। কেরলের হয়ে গোল করে যান বিপিন আজাইল। ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় কেরল। বাংলার হয়ে গোল করেন বাবলু ওঁরাও। কেরলের হয়ে ৩-২ করেন জিজো জোসেফ। এরপরে গোল রক্ষক পরিবর্তন করেন বিনো জর্জ। তবুও গোল করে যান তন্ময়। কেরলের জেসন গোল করে ব্যবধান এক রাখেন। গোল করেন প্রিয়ন্ত কুমার সিংও। তারপরেই তাঁকে তুলে নেন রঞ্জন। নামেন রাজ বর্মন। তাতেও লাভ হয়নি। ফের টাইব্রেকারে ফাইনালে কেরলের কাছে হারতে হল বাংলাকে।

আরও পড়ুন:CSK: ম‍্যাচের সেরা হয়েই আরসিবি অধিনায়ককে খোঁচা রুতুরাজের

Previous articleজার্মানি গিয়ে রাশিয়ার নিন্দায় সরব মোদি