পরিবারের একজনকেই টিকিট, ৫ বছরের বেশি পদ নয়: নয়া নিয়মের পথে কংগ্রেস

সময় যত গড়াচ্ছে দলের অবস্থা ততই শোচনীয় হয়ে উঠছে। এদিকে সামনেই লোকসভা নির্বাচন। তার আগে দলকে ঘুরে দাঁড় করাতে এবার কঠোর হওয়ার সিদ্ধান্ত নিল হাত শিবির(Congress)। দলে বৃদ্ধতন্ত্রের অবসান ঘটিয়ে যুবসমাজকে সামনে আনতে একাধিক নতুন পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কংগ্রেসে পরিবারতন্ত্রের দোষ নতুন নয়। কংগ্রেসের এই পরিবারতন্ত্রকে দুষেই রাজনীতির ময়দানে সাফল্য তুলছে বিজেপি। এই পরিস্থিতিতে বদনাম ঘোঁচাতে কংগ্রেসের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, এখন থেকে দলে পরিবারের একজনকেই টিকিট দেওয়া হবে। বাবা সাংসদ-ছেলে বিধায়ক এই নীতি আর চলবে না। শুক্রবার কংগ্রেসের চিন্তন শিবির শুরুর ঠিক আগে আগে দলের অন্যতম সাধারণ সম্পাদক অজয় মাকেন জানিয়েছেন, এক পরিবার এক টিকিট নীতিতে মোটামুটি সবাই একমত। এই নীতি থেকে শুধু গান্ধী পরিবারকে (Gandhi Family) বাদ রাখা হবে। কংগ্রেস সূত্রের খবর, এক পরিবারের একাধিক সদস্য তো টিকিট পাবেনই না। কোনও নেতার আত্মীয়কে টিকিট পেতে হলেও তাঁকে অন্তত পাঁচ বছর কংগ্রেসের হয়ে কাজ করতে হবে।

আরও পড়ুন:Railway Update:জেনে নিন হাওড়া ব্যান্ডেল শাখার কোন কোন ট্রেন বাতিল

কংগ্রেস সুত্রে খবর, দলে বৃদ্ধ নেতাদের দাপটে যুবনেতারা রীতিমত বীতশ্রদ্ধ। যার জেরেই জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, অশোক তানওয়ার, জিতিন প্রসাদের মতো নেতারা দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে বদল আনতে এবার কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল হাত শিবির। জানা গিয়েছে, এখন থেকে দলে কোনও পদাধিকারী ৫ বছরের বেশি পদে থাকতে পারবেন না। প্রয়োজনে ৩ বছরের কুলিং অফ পিরিয়ডও চালু করা হতে পারে। আরও তাৎপর্যপূর্ণভাবে দলের সব কমিটিতে অন্তত ৫০ শতাংশ সদস্যের বয়স পঞ্চাশের নিচে রাখার প্রস্তাব গ্রহণ করেছে হাত শিবির। উল্লেখ্য, সমালোচনায় বিদ্ধ কংগ্রেস শাসকদলকে টেক্কা দিতে ‘এক ব্যক্তি এক পদ’ নীতি চালু করতে উদ্যোগী হয়েছে দীর্ঘদিন ধরেই। কিন্তু তা বাস্তবায়িত করতে গিয়ে পদে পদে ধাক্কা খেতে হচ্ছে দলকে। এই অবস্থায় নয়া নীতি চালু করতে চাইলেও তা রীতিমত চ্যালেঞ্জিং বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।




Previous articleবাস্তুহারা বউবাজারের বাসিন্দাদের পাশে দাঁড়াতে বিশেষ উদ্যোগ এলাকার পৌরপিতার