ভবানীপুরে জোড়া খুনকাণ্ড: সুপারি কিলার সহ গ্রেফতার ৩

ভবানীপুরে দম্পতি খুনকাণ্ডে গ্রেফতার করা হল সুপারি কিলারকে। তাকে ওড়িশা থেকে আনা হয়েছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।  পুলিশ সূত্রে খবর, খুনের পরে কলকাতাতেই গা-ঢাকা দিয়ে ছিল এই সুপারি কিলার।এইনিয়ে ঘটনায় মোট ৩ জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ।




আরও পড়ুন:ভবানীপুর জোড়া খুনে পরিচিতরা জড়িত বলে অনুমান, দ্রুত ধরা পড়বে আততায়ীরা: ঘটনাস্থলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী



দম্পতি খুনের ঘটনায় প্রথম থেকেই মেঝ জামাইকে সন্দেহ করেছিল পুলিশ। সময় যত এগোচ্ছে, ততই রহস্য আরও ঘনীভূত হচ্ছে। মেঝ জামাই কী এই ঘটনায় প্রত্যক্ষভাবে জড়িত? কিন্তু কেন দম্পতিকে খুন করা হল তা এখনও স্পষ্ট নয়। পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, ভবানীপুরের বাসিন্দা অশোক শাহ মোটা টাকা ধার নিয়েছিলেন, এক পরিচিতের কাছ থেকে। মনে করা হচ্ছে, সেই অর্থ ফেরত দিতে পারেননি অশোক শাহ, আর সেই কারণেই তাঁকে খুন হতে হয়েছে। এছাড়াও ভবানীপুরের ফ্ল্যাট বিক্রি নিয়ে কোনও জটিলতা হয়েছিল কি না এবং এই খুনের পিছনে ফ্ল্যাট বিক্রি সংক্রান্ত কোনও বিবাদ রয়েছে কি না, তা-ও তদন্ত করে দেখছে পুলিশ। সুপারি কিলার ছাড়াও এই ঘটনার এক জন মাস্টারমাইন্ড রয়েছে। সে পরিবারেরই পরিচিত বলে সন্দেহ পুলিশের। পুলিশি তদন্তে উঠে এসেছে, ঘটনার কয়েকদিন আগে দম্পতির বাড়িতে যায় ওই মাস্টার মাইন্ড। সেখানে গিয়ে সে খুনের ছক করে।




পুলিশের অনুমান ওই পেশাদার খুনিদের খুনের বরাত দিয়ে থাকতে পারেন দম্পতির মেজো জামাই।  তদন্তে অনুমান, ওই পেশাদার খুনিদের খুনের বরাত দিয়ে থাকতে পারেন দম্পতির মেজো জামাইয়ের ওই আত্মীয়। ভবানীপুরের নিহত গুজরাতি দম্পতির তিন কন্যা। এই ঘটনায় রাজ্যের বাইরের কয়েক জন জড়িত তদন্তে জানিয়েছে পুলিশ।

Previous articleবিধানসভা অধিবেশনে সাসপেন্ড শুভেন্দুদের আমন্ত্রণ নয়, কড়া নির্দেশ স্পিকারের