কথা রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী: পূর্ব বর্ধমানে চাকরি পাচ্ছেন রেণু খাতুন

বুধবারই জানিয়েছিলেন রেনু খাতুন (Renu Khatun)কে চাকরি দেওয়া হবে। কথা রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। বৃহস্পতিবার নবান্নের সাংবাদিক বৈঠকে জানালেন, নার্সিংয়ে (Nursing) নয়, তবে পূর্ব বর্ধমানে নার্সিং গ্রেডেই নন-নার্সিং কাজ করবেন রেণু। নিয়োগপত্র ইতিমধ্যে ইস্যু করা হয়ে গিয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী জানান, ওয়েস্টবেঙ্গল হেল্থ রিক্রুটমেন্ট বোর্ড পূর্ব বর্ধমানে তাঁকে সুপারিশ করছে। স্টাফ নার্সের গ্রেড টু-তে চাকরি পেয়েছিলেন রেণু। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে নার্সিং নয়, অন্য কাজ করবেন রেণু। তবে যেহেতু নার্সিং পাশ করেছিলেন, তাই সেই গ্রেডেই থাকবে। ২৯ হাজার ৮০০ টাকা বেতন পাবেন। “তাঁর হাতের চিকিৎসার ব্যবস্থাও আমরা করব। আর আইন অনুযায়ী, পুলিশ যা পদক্ষেপ করার করবে।”

সরকারি হাসপাতালে নার্সের চাকরি পাওয়ায় স্বামী ডান হাতের কবজি কেটে নিয়েছিল স্বামী। কেতুগ্রামের সেই রেণু খাতুনের পাশে দাঁড়িয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। বুধবার, ভবানীপুর (Bhabanipur) বুধবার মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন, রেণুর জন্য তিনটি পদক্ষেপ করা হচ্ছে। নার্সের চাকরির পরীক্ষায় রেণুর ডান হাতের কবজি না থাকায় তিনি বসে, মুখে বলে যে কাজ করতে পারবেন, সেই কাজ তাঁকে দেওয়া হবে। রেণুকে রাজ্য সরকারি সাহায্যে কৃত্রিম হাত লাগানোর ব্যবস্থা করা হবে। বেসরকারি হাসপাতালে রেণুর চিকিৎসার টাকা দেবে রাজ্য।

শনিবার রাতে রেণুর ডান হাতের কবজি কেটে নেয় স্বামী। স্বামী এবং তার বাবা-মাকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে পুলিশ। গ্রেফতার হয়েছে রেণুর স্বামীর দুই বন্ধু। তবে মুখ্যমন্ত্রী তাঁর পাশে দাঁড়ানোয় রেণুর মন্তব্য, “তাঁকে ধন্যবাদ জানানোর ভাষা আমার জানা নেই। আমি কৃতজ্ঞ।”


Previous articleবিজেপির মন্তব্যের প্রতিবাদ বাংলায় কেন? দিল্লি যান: অবরোধে ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী