রাষ্ট্রপতি প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব ফেরালেন গোপালকৃষ্ণ গান্ধী, নজরে এবার যশবন্ত

প্রথমে শরদ পাওয়ার(Sharad Pawar), তারপর ফারুক আবদুল্লা(Farooq Abdullha) এবার রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের(Presidencial Election) প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে দাঁড়ালেন গোপালকৃষ্ণ গান্ধী(Gopal Krishna Gandhi)। সোমবার বিবৃতি দিয়ে বিরোধী শিবিরের তরফে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেন গান্ধীজীর প্রপৌত্র। কেন তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সোমবার সেকথাও স্পষ্ট করে দেন তিনি।

রাষ্ট্রপতি নির্বাচন উপলক্ষ্যে বিরোধী শিবিরের তরফে পাওয়ারের পর যে নামটি ভাবা হয়েছিল তিনি গোপালকৃষ্ণ গান্ধী। তবে বিরোধীদের প্রস্তাব ফিরিয়ে এদিন নিজের বিবৃতিতে পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন রাজ্যপাল জানান, রাষ্ট্রপতি প্রার্থী হওয়ার জন্য বিরোধীরা যৌথভাবে তাঁর নাম প্রস্তাব করেছে এর জন্য তিনি কৃতজ্ঞ। কিন্তু তাঁর চেয়েও যোগ্য ও ভাল কোনও প্রার্থীর নাম ভাবার অনুরোধ জানিয়ে গোপাল কৃষ্ণ গান্ধী জানান, বর্তমানে রাষ্ট্রপতি পদে এমন একজনকে প্রার্থী করা প্রয়োজন, যিনি জাতীয় ঐকমত্য প্রতিষ্ঠা করতে পারবেন। অবশ্য বিরোধীদের তরফে তৃতীয় পছন্দ হিসেবে জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লার নাম উঠে আসছিল। তবে তিনিও প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব ফিরিয়েছেন আগেই।

এই পরিস্থিতিতে শরদ পাওয়ারের ডাকে আগামীকাল অর্থাৎ মঙ্গলবার দিল্লিতে ফের বিরোধী বৈঠকের ডাক দেওয়া হয়েছে। সেখানে অবশ্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হাজির না থাকলেও তাঁর পরিবর্তে থাকছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও সেই বৈঠকের আগে তৃতীয় আর একটি নাম উঠে আসছে বিরোধী শিবিরের তরফে। তিনি প্রবীণ রাজনীতিবিদ যশবন্ত সিনহা। বর্তমানে তিনি তৃণমূলের সর্বভারতীয় সহ সভাপতি পদে রয়েছেন। জানা যাচ্ছে, এই নামে ইতিমধ্যেই সমর্থন জানিয়েছে বিরোধী শিবিরের নেতৃত্বরা। ফলে মঙ্গলবারের বৈঠকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়ে বিরোধী শিবিরের ছবিটা আরও স্পষ্ট হবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।


Previous articleTripura: 23 তারিখের উপনির্বাচনেই 23-এর বিধানসভা জয়ের খুঁটিপুজো: অভিষেক