গরফায় দুই ব্যক্তির অস্বাভাবিক মৃত্যু, এলাকায় চাঞ্চল্য

প্রাথমিকভাবে পুলিশ জানতে পেরেছে, অনেকদিন ধরেই শান্তি এবং গোবর্ধনের মধ্যে পরিচয় ছিল। ওই ফ্ল্যাটে নিয়মিত আসা-যাওয়া করতেন শান্তি। মঙ্গলবার গোবর্ধনই ফোন করে শান্তির বোন মুন্নিকে তাঁর দিদির মৃত্যুর খবর জানান।

গরফায় একটি ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছে মহিলার দেহ। অন্যদিকে, বালিগঞ্জ-ঢাকুরিয়ার(Baliganj-Dhakuria) মাঝে রেললাইনের ধারে মিলেছে ওই ফ্ল্যাট-মালিকের দেহও। অল্প দূরত্বের মধ্যে পরপর দু’টি দেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত মহিলার নাম শান্তি সিংহ এবং ফ্ল্যাট-মালিকের নাম গোবর্ধন শেঠ। গোবর্ধনের ফ্ল্যাট থেকেই উদ্ধার হয়েছে শান্তির দেহ।
প্রাথমিকভাবে পুলিশ জানতে পেরেছে, অনেকদিন ধরেই শান্তি এবং গোবর্ধনের মধ্যে পরিচয় ছিল। ওই ফ্ল্যাটে নিয়মিত আসা-যাওয়া করতেন শান্তি। মঙ্গলবার গোবর্ধনই ফোন করে শান্তির বোন মুন্নিকে তাঁর দিদির মৃত্যুর খবর জানান। মুন্নির দাবি, গোবর্ধন তাকে বলেছিলেন যে তিনি নিজেই শান্তির মৃত্যুর জন্য দায়ী। এরপর তড়িঘড়ি গরফা থানায় গিয়ে পুরো বিষয়টি জানান মুন্নি।পুলিশ ফ্ল্যাট থেকে শান্তির দেহ উদ্ধার করে। সেই সময় গোবর্ধনের মোবাইল থেকে মুন্নির মোবাইলে একটি ফোন আসে। সেই ফোনে রেলপুলিশ জানায় যে, বালিগঞ্জ-ঢাকুরিয়ার মাঝে লাইনের ধারে গোবর্ধনের দেহ মিলেছে।

আরও পড়ুন- Earthquake: আফগানিস্তানের ভূমিকম্প, কেঁপে উঠল পড়শি পাকিস্তানও
প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান, শান্তি ও গোবর্ধনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। শান্তিকে শ্বাসরোধ করা হয়, এরপরই গোবর্ধনের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয় বলে মনে করা হচ্ছে। আসল কারণ খুঁজে বের করার জন্য তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Previous articleসিদ্ধান্ত বৈঠকে উপস্থিত ইয়াচুরি, যশবন্ত নিয়ে চুপ থাকার বার্তা আলিমুদ্দিনকে