বিতর্কের মধ্যেই ব্রাহ্ম ধর্মে দীক্ষিত বিশ্বভারতীতে আজ অনলাইনে ”কালী পুজোর ধারণা” বিষয়ক আলোচনা

আজ, সোমবার বিকাল চারটে ”কালী পুজোর ধারণা” বিষয়ক আলোচনা হতে চলেছে রবীন্দ্র স্মৃতি বিজড়িত বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট্রাল লাইবেরি কনফারেন্স হলে। বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ ছাড়াও মূল বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আলমবাজার মঠের শারদাত্মনানন্দ মহারাজ। তবে অনলাইনে হবে উপস্থাপিত হবে কালী পুজোর ধারণা বিষয়ক আলোচনা।

অন্যদিকে, বিশ্বভারতীর মতো একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, যারা ব্রাহ্ম ধর্মে দীক্ষিত বলেই জানেন সকলে, সেখানে এই ধরনের ধর্মীয় আলোচনা ঘিরে প্রবল বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। কারণ, শান্তিনিকেতন বিশ্বভারতী মূর্তিপূজা বা সরাসরি কোনও ধর্মকে প্রাধান্য দেয় না। বছরের পর বছর ধরে এমনই রীতি মেনে আসছে বিশ্বভারতী। কিন্তু নজিরবিহীনভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে প্রথমবার ধর্মীয় বিষয় নিয়ে আলোচনা করার সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ।

রীতি ভেঙে আরএসএস এবং কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে খুশি করতেই বিশ্বভারতী এমন ধর্মীয় পদক্ষেপ অভিযোগ করছে ছাত্র ও অধ্যাপক সংগঠনগুলি। লেকচার সিরিজের এই আলোচনার আসর অবিলম্বে বন্ধ করা উচিত বলেই দাবি অনেক প্রাক্তনী এবং আশ্রমিকের। চাপে পড়ে বিতর্ক এড়িয়ে যেতেই কর্তৃপক্ষ অবশেষে আলোচনাটি অফলাইনের বদলে অনলাইন পদ্ধতিতে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।


Previous articleসপ্তাহের শুরুতেই নিম্নমুখী দেশের কোভিড গ্রাফ