‘দেশের সবচেয়ে বড় ব্যাঙ্ক জালিয়াতি’র তদন্তে  বাড়ি থেকে হেলিকপ্টার বাজেয়াপ্ত করল সিবিআই !

অভিযুক্তের বাড়িতে পাওয়া গেল আস্ত হেলিকপ্টার! তাও যে সে কপ্টার নয়, বিতর্কিত অগুস্তা ওয়েস্টল্যান্ড হেলিকপ্টার।

বাড়িতে অনেক কিছুই আমরা থাকতে দেখেছি। দু চাকা থেকে চার চাকা অনেকের বাড়িতেই আছে। তা বলে হেলিকপ্টার! হ্যাঁ, এমনই কাণ্ড দেখে রীতিমতো চক্ষু চড়কগাছ সিবিআইয়ের। ‘দেশের সবচেয়ে বড় ব্যাঙ্ক জালিয়াতি’র তদন্তে অভিযুক্তের বাড়িতে হানা দিয়েছিল সিবিআই। কিন্তু তাদের জন্য যে এমন চমক অপেক্ষা করে আছে তা তারা ভাবতে পারেননি। অভিযুক্তের বাড়িতে পাওয়া গেল আস্ত হেলিকপ্টার! তাও যে সে কপ্টার নয়, বিতর্কিত অগুস্তা ওয়েস্টল্যান্ড হেলিকপ্টার।

দিওয়ান হাউসিং ফিন্যান্স লিমিটেডে (ডিএইচএফএল) ৩৪ হাজার কোটি টাকার জালিয়াতি মামলায় অভিযুক্ত ব্যবসায়ী অবিনাশ ভোঁসলে। তার পুণের বাড়িতে হানা দিয়েছিল সিবিআই। সেখান থেকে এই কপ্টার বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, ওই ব্যবসায়ীর বাড়ির মধ্যে একটি সুবিশাল বিলাসবহুল ঘরের মধ্যে হ্যাঙ্গার করা ছিল। তাতেই রাখা ছিল কপ্টারটি।

ব্যাঙ্ক প্রতারণা মামলায় গত ২০ জুন ডিএইচএফএলের প্রাক্তন শীর্ষ কর্তা কপিল ওয়াধাওয়ান, দীপক ওয়াধাওয়ানদের অভিযুক্ত করে সিবিআই। চলতি মাসের শুরুতে তাঁদের কাছ থেকে এক কোটিরও বেশি টাকার ২৫টি ঘড়ি, ৩৮ কোটি টাকার ৫৬টি ছবি বাজেয়াপ্ত করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। সেই বাজেয়াপ্তের তালিকায় অগুস্তা কপ্টারের নাম উঠে আসায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা দেশ জুড়ে।

উল্লেখ্য, ইউপিএ জমানায় অগুস্তা কপ্টার কেনাবেচায় দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে। যা ঘিরে সরগরম হয় রাজনীতির ময়দান। পাল্টা আক্রমণে নেমেছিল কংগ্রেসও। তাদের দাবি ছিল, বাজপেয়ী জমানাতেই ওই কপ্টার কেনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কংগ্রেসের আমলে চুক্তি সম্পন্ন হয়েছিল মাত্র।

 

 

Previous articleঅর্পিতার সঙ্গে যৌথ অ্যাকাউন্টে আরও ৮কোটির হদিশ! পার্থ বললেন, “আমার কোনও টাকা নেই”