অর্পিতাকে সঙ্গে নিয়ে বহুমূল্য সোনার গয়না কিনে দিতেন পার্থ! কোথা থেকে কিনতেন ব্র্যান্ডেড জুয়েলারি?

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের নজরে এ বার পার্থ-অর্পিতার বাড়ি থেকে উদ্ধার বহুমূল্য টাকার সোনার গয়না। অর্পিতার টালিগঞ্জ ও বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হওয়া সোনার গয়না ঠিক কোথা থেকে কিনতেন অর্পিতা? নাকি এই গয়না পার্থ চট্টোপাধ্যায়ই তাঁকে উপহার দিতেন? তদন্তে নেমে ইডি আধিকারিকরা জানিয়েছেন, মাঝেমধ্যেই অর্পিতাকে সঙ্গে নিয়ে গিয়ে তাঁকে পছন্দসই গয়না কিনে দিতেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সোনার গয়নার দোকানে ছিল মাসিক খাতাও।

আরও পড়ুন:৪৯ লক্ষ নগদ নিয়ে ধৃত ৩ বিধায়ককে সাসপেন্ড করল কংগ্রেস, তদন্তে CID

ইডি সূত্রের খবর, মধ্যমগ্রামের নামী সোনার বিপণিতে যাতায়াত ছিল পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে ওই সোনার দোকানে যেতেন তিনি। দামি তো বটেই , পাশাপাশি ব্র্যান্ডেড হীরে ও সোনার গয়না কিনেও দিতেন বহিষ্কৃত মন্ত্রী। শুধু তাই নয়,  যখন তিনি নিজে যেতে পারতেন না, তখন দোকানে ফোন করে নিজের পছন্দের গয়নার ডিজাইন জানিয়ে দিতেন অর্পিতা। সেইমতো গয়না পৌঁছে যেত অর্পিতার ফ্ল্যাটে।

এদিকে কসবায় রাজডাঙায়  অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের বাড় ‘ইচ্ছে’ নিয়ে প্রকাশ্যে উঠে এসেছে আইনি জটিলতা। কেএমডিএ-র তরফে খবর, পুরসভার নথিতে উল্লেখ, কসবার রাজডাঙা মেন রোডে তিনটি প্লট।  ১০, ১১ এবং ১২। ১১ প্লটে রয়েছে ‘ইচ্ছে’ নামের বাড়িটি। আর ১০ এবং ১২ নম্বর প্লটে ফাঁকা জমি। অথচ ওই দুটি প্লটেও বাড়ি রয়েছে। সুতরাং ওই বাড়িটি হিসেবমত কেএমডিএ-এর। তাই ওই প্লট দুটি তারা অধিগ্রহণ করতে পারে।

Previous articleকমনওয়েলথ গেমসে রুপোর পদক জিতে পরবর্তী লক্ষ‍্যের কথা জানিয়ে দিলেন বিদ‍্যারানী