দেশে মহিলাদের সুরক্ষা নিয়ে সংসদে আলোচনার দাবিতে সোচ্চার তৃণমূল

সংসদের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে মূল্যবৃদ্ধি, জিএসটি সহ গুজরাটের মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ওঠা ধ*র্ষণের অভিযোগকেও হাতিয়ার করে সংসদে ঝাঁপাতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

মহিলা ইস্যু নিয়ে সংসদে সরকারপক্ষ তথা বিজেপিকে (BJP) কোণঠাসা করার রণকৌশল তৈরি করে ফেলেছে তৃণমূল কংগ্রেস (TMC)। সংসদের বাদল অধিবেশনের তৃতীয় সপ্তাহে দলের মহিলা সাংসদ থেকে মন্ত্রীদের লোকসভা ও রাজ্যসভার অন্দরে সামনে এগিয়ে দিয়ে বিরোধীদের আক্রমণের স্ট্র্যাটেজি নিয়েছে । পালটা মহিলা অস্ত্রেই বিজেপিকে নিশানা করার তোড়জোড় শুরু হয়ে গিয়েছে তৃণমূলের অন্দরে।শুক্রবারই দলের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকে গুজরাটের (Gujarat) গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী অর্জুন সিং চৌহানের ছবি-সহ তাঁর বিরুদ্ধে এক মহিলাকে ‘ধ*র্ষণ ও বেআইনিভাবে আটকে রাখার’ খবর পোস্ট করা হয়েছে। ‘শেমঅনবিজেপি’ হ্যাশট্যাগে পোস্টের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে যুক্ত করে লেখা হয়েছে, “পিএম নরেন্দ্র মোদি, মহিলা সুরক্ষা নিশ্চিত করা নিয়ে আপনার বড় বড় দাবি এখন কোথায় গেল? এটা আপনার নিজের জায়গাতেই হয়েছে!”

নারী নিরাপত্তার ইস্যুকে সামনে রেখে আগামী সোমবার থেকেই তৃণমূল কংগ্রেস যে মাঠে নামতে চলেছে, তার প্রমাণ মিলেছে দলের রাজ্যসভার দলনেতা ডেরেক ও’ব্রায়েনের (Derek O Brien) করা টুইট থেকেই। টুইটে প্রধানমন্ত্রী মোদি (PM Narendra Modi) ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে (Amit Shah) ট্যাগ করে তিনি লিখেছেন, ‘‘সোমবার সকাল থেকে আপনাদের দু’জনের সঙ্গেই দেখা হবে। আপনারা যেভাবে বিরোধীদের অসম্মান করছেন, এই বিষয়টিকে সামনে আনতে তৎপর হয়েছেন তাতে আমরা সবাই অপেক্ষা করছি। সোমবার বেলা ১১টা। দেখা হবে। বি.দ্র – যদি ৫৬ ইঞ্চি না আসেন, নম্বর ২কে পাঠান।’’

সংসদের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে মূল্যবৃদ্ধি, জিএসটি সহ গুজরাটের মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ওঠা ধ*র্ষণের অভিযোগকেও হাতিয়ার করে সংসদে ঝাঁপাতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। লোকসভা এবং রাজ্যসভায় আলোচনার জন্য ইতিমধ্যেই নোটিশ দেওয়া হয়েছে দলের তরফে। লোকসভায় কাকলি ঘোষদস্তিদার মুলতুবি প্রস্তাব এবং রাজ্যসভায় দোলা সেন এবং মৌসম বেনজির নুর গুজরাত ইস্যু নিয়ে ২৬৭ ধারায় নোটিশ দিয়েছেন,অন্যান্য সমস্ত আলোচনা বন্ধ রেখে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করার জন্যে। প্রসঙ্গত, পরিসংখ্যান অনুযায়ী, নিজের কার্যকালে রাজ্যসভার চেয়ারম্যান হিসেবে এখনও পর্যন্ত একটিও ২৬৭ ধারার নোটিশের মান্যতা দেননি বেঙ্কাইয়া নাইডু সুতরাং সেই নোটিশ কতটা গৃহীত হবে তা নিয়ে সন্দিহান দল।

উল্লেখ্য, রাজ্যের গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী, অর্জুন সিং চৌহানের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি তালুকা পঞ্চায়েতের অন্তর্গত এক মহিলাকে দিনের পর দিন আটকে রেখে ধ*র্ষণ করেছে। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আনেন খেদা জেলার মেহমেদাবাদ তালুকার প্রাক্তন প্রধান, ওই নির্যাতিতার স্বামী । ২০১৫ থেকে ২০২১ পর্যন্ত সময়ে তাঁর স্ত্রীকে একাধিকবার ধ*র্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। প্রাথমিক তদন্তে অভিযোগের সত্যতা খতিয়ে দেখে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে জেলা পুলিশ।

আগামী সপ্তাহে লোকসভা এবং রাজ্যসভায় গুজরাত ইস্যুকে সামনে রেখেই দেশে মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে সরব হতে চলেছে তৃণমূল শিবির। কংগ্রেসের তরফেও এনিয়ে আলোচনার দাবি জানানো হবে বলে সূত্রের খবর। গুজরাতের ইস্যু নিয়ে টুইটারে মোদি-শাহের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন তৃণমূলের লোকসভার সাংসদ মহুয়া মৈত্র। টুইটারে তিনি লেখেন, “৫ বছর ধরে এক মহিলাকে লাগাতার ধ*র্ষণ করেছেন, আটকে রেখেছিলেন গুজরাত মন্ত্রিসভার সদস্য অর্জুন সিং। সোমবার আপনি যখন লোকসভায় আসবেন মাননীয় অধ্যক্ষ, আগে বিরোধীদের বলতে দেবেন। যাতে আমরা প্রধানমন্ত্রীকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি তুলতে পারি। মাননীয় মহাশয়, আইনের আগে সাম্যতা, তাই না।”

 

 

Previous articleঝাড়খণ্ডে সরকার ফেলতে ১০ কোটি টাকার ডিল, কংগ্রেস বিধায়কদের সঙ্গে ছিল টোকেন মানি! তীব্র আক্রমণ তৃণমূলের
Next articleসোমবারে মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক, রদবদল নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে