মেয়রের বাড়ির সামনে বিক্ষোভ বিজেপির! “যোগী রাজ্যে চলে বুলডোজার, বাংলায় গণতন্ত্র” প্রতিক্রিয়া ফিরহাদের

রাজ্যে গণতন্ত্র রয়েছে বলেই প্রতিবাদ করার রাস্তাও রয়েছে বলেই মত রাজ্যের মন্ত্রী তথা মেয়র ফিরহাদ হাকিমের। তিনি আরও জানান, প্রতিবাদের সেই রাস্তার বিরোধীরা অপব্যবহার করছে। এরপরই ফিরহাদ বলেন, পারলে যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যে গিয়ে বিক্ষোভ দেখান, কারণ ওখানে ডেঙ্গির প্রকোপ এবারে সবথেকে বেশি।

ডেঙ্গি (Dengue) মোকাবিলায় ব্যর্থতার অভিযোগ তুলে কলকাতা পুরসভার (KMC) মেয়র (Mayor) তথা মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিমের (Firhad Hakim) চেতলার বাড়ির সামনে বিক্ষোভ বিজেপির (BJP)। সোমবার বেলা গড়াতেই মেয়রের চেতলার বাড়ির সামনে জমায়েত করে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা। সময় যত গড়াতে থাকে ততই উত্তপ্ত হতে থাকে পরিস্থিতি। নিয়ম ভেঙে মেয়রের বাড়ির সামনে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বিক্ষোভ নিয়ে ইতিমধ্যে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। রাজনৈতিক মহলের মতে কলকাতা পুরসভার সমস্যার কথা জানানোর জন্য পুরসভা ভবন তো ছিলই কিন্তু এভাবে মহানাগরিকের বাড়ির সামনে বিক্ষোভ কেন? এদিন মেয়রের বাড়ির সামনে আগুন জ্বালিয়েও বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন বিজেপির কর্মী সমর্থকরা। পুলিশ তাঁদের বাধা দিলেই শুরু হয় ধস্তাধস্তি।

 

এদিকে রাজ্যে গণতন্ত্র রয়েছে বলেই প্রতিবাদ করার রাস্তাও রয়েছে বলেই মত রাজ্যের মন্ত্রী তথা মেয়র ফিরহাদ হাকিমের। তিনি আরও জানান, প্রতিবাদের সেই রাস্তার বিরোধীরা অপব্যবহার করছে। এরপরই ফিরহাদ বলেন, পারলে যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যে গিয়ে বিক্ষোভ দেখান, কারণ ওখানে ডেঙ্গির প্রকোপ এবারে সবথেকে বেশি। কিন্তু ওখানে গিয়ে পারবেন না, কারণ ওঁদের পুলিশ মেরে তুলে দেয়। ওখানে বুলডোজার চলে আর বাংলায় চলে গণতন্ত্র।

রাজ্যে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, এই অভিযোগ তুলেই সোমবার ডেঙ্গির বাড়বাড়ন্তে মেয়রের পদত্যাগের দাবি জানায় বিজেপি। বিজেপি যুব মোর্চার উত্তর কলকাতা শাখা এদিন মিছিল করে চেতলা পৌঁছন। পাইকপাড়া থেকে টালা পার্কের কাছে ১ নম্বর বরোর অফিস পর্যন্ত মিছিলে সামিল হন বিজেপি কর্মীরা। বিজেপি নেতা কর্মীদের এদিন গায়ে নেটের জামা পরেও বিক্ষোভ দেখাতে দেখা যায়। তবে এদিন বিক্ষোভের আঁচ পেয়ে প্রস্তুত ছিল পুলিশও। কড়া হাতে পরিস্থিতি মোকাবিলা করেন পুলিশ আধিকারিকরা। তবে পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে অন্য রাস্তা দিয়ে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা চেতলায় ফিরহাদ হাকিমের বাড়ির সামনে পৌঁছে যায় বলে অভিযোগ। আর পুলিশ বাধা দিলেই শুরু হয় ধস্তাধস্তি।

অন্যদিকে, ডেঙ্গি প্রতিরোধে কলকাতা পুরসভার বিরুদ্ধে ব্যর্থতার অভিযোগ তুলে সোমবার পথে নামে কংগ্রেসও। তাঁদেরও গন্তব্য ছিল মেয়র ফিরহাদ হাকিমের চেতলার বাসভবন। এদিন লেক মার্কেটের সামনে থেকে শুরু হয় কংগ্রেসের মিছিল। কিন্তু রাসবিহারী মোড়ে কংগ্রেস কর্মী সমর্থকদের মিছিল পুলিশ আটকে দেয়।

Previous articleঝাড়গ্রাম সফরে মমতা, মুখ্যমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানাতে প্রস্তুত জঙ্গলমহল