দিল্লি থেকে কলকাতায় এসে সন্তানের জন্ম দিল ১৩ বছরের কিশোরী

মা হল ১৩ বছরের কিশোরী। বৃহস্পতিবার মধ্য কলকাতার একটি হাসপাতালে সন্তানের জন্ম দেয় ওই কিশোরী। নাবালিকার মা হওয়ার বিষয়টি থানায় জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। শিশুটিকে সদ্যোজাতদের ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে রাখা হয়েছে। তবে সুস্থ রয়েছে নাবালিকা।

আরও পড়ুন:জেলমুক্ত ভীমা কোরেগাঁও মামলায় অভিযুক্ত গৌতম নওলখা, গৃহবন্দি রাখবে মুম্বই পুলিশ

জানা গিয়েছে, মেয়েটির বাবা ও মা দিল্লিতে থাকেন। মা সেখানে পরিচারিকার কাজ করেন। বাবা দিল্লির একটি গ্রিলের দোকানে কাজ করেন। চলতি মাসেই ১৩ বছরে পা দিয়েছে সদ্য মা হওয়া কিশোরীটি। দিল্লিতে বাবা-মায়ের কাছেই থাকত সে। পুজোর সময় কলকাতায় আসে। শহরে এসেই অসুস্থ হয়ে পড়ে সে।পেটব্যাথা শুরু হলে চিকিৎসা করাতে গেলে জানা যায় সে অন্তঃসত্ত্বা।

গত বৃহস্পতিবার প্রসববেদনা শুরু হয় ওই কিশোরীর। মধ্য কলকাতার এক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে পুত্রসন্তানের জন্ম দেয় সে। সাধারণ সদ্যোজাতের তুলনায় শিশুটির ওজন বেশ কম। তাকে সদ্যোজাতদের ক্রিটিক্যাল কেয়ার ‘নিকু’তে রাখা হয়েছে। তবে নাবালিকা মা সুস্থ রয়েছে।

ওই হাসপাতালের সুপার জানান, ‘‘বৃহস্পতিবার নাবালিকাকে তাঁর দিদিমা এবং মাসি হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তার বিষয়ে খোঁজখবর নিই আমরা। জিজ্ঞেস করি, কী ভাবে হল? যদিও তখন কিশোরীর প্রাণ বাঁচানোকেই গুরুত্ব দিই। এর পর একা নাবালিকা মায়ের বিষয়ে থানায় জানাই।’’

নাবালিকার দিদা জানান, “ও দিল্লিতে থাকত। প্রথমে যখন কলকাতায় আসে, কিছু বুঝতে পারিনি। পরে অসুস্থ হলে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাই। চিকিৎসক জানান ও অন্তঃসত্ত্বা। তখন ওর কাছে জানতে চাই। ও জানায়, পরিচিত এক জন আসতেন। ভয় দেখিয়ে জোর করেছে। আমরা যখন জানতে পারি, লজ্জা, ভয়ে আর অভিযোগ করতে পারিনি।’’

Previous articleজেলমুক্ত ভীমা কোরেগাঁও মামলায় অভিযুক্ত গৌতম নওলখা, গৃহবন্দি রাখবে মুম্বই পুলিশ