ঘণ্টা খানেকেই শেষ জিজ্ঞাসাবাদ, অভিযোগ নিয়ে কী বললেন কুন্তল

নিয়োগ দুর্নীতিতে অভিযুক্ত এবং প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের অপসারিত সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যের ঘনিষ্ঠ তাপস মণ্ডল অভিযোগ করে বলেন যে কুন্তল ঘোষ চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা করে কোটি কোটি টাকা নিয়েছেন।

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি (SSC Recruitment Scam)সংক্রান্ত জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বুধবার দুপুর ৩ টে নাগাদ নিজাম প্যালেসে (Nizam Palace)হাজিরা দেন হুগলি তৃণমূলের যুব নেতা কুন্তল ঘোষ (Kuntal Ghosh)। তাঁর বিরুদ্ধে বেআইনি শিক্ষক নিয়োগের প্রায় সাড়ে ১৯ কোটি টাকা নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। সে বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কুন্তলকে ডেকে পাঠানো হয়েছিল। এক ঘণ্টা সেখানে থাকার পর বিকেলেই নিজাম থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেন কুন্তল (Kuntal Ghosh)। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে পাল্টা প্রশ্ন ছুঁড়ে তিনি বলেন,”আমি যদি টাকা নিতাম, সিবিআই (CBI)কি এত সহজে আমাকে ছেড়ে দিত?”

নিয়োগ দুর্নীতিতে অভিযুক্ত এবং প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের অপসারিত সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যের ঘনিষ্ঠ তাপস মণ্ডল অভিযোগ করে বলেন যে কুন্তল ঘোষ চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা করে কোটি কোটি টাকা নিয়েছেন। কিন্তু শিক্ষা দফতরের সঙ্গে যুক্ত না থাকা সত্ত্বেও কী করে কুন্তল ঘোষের নাম জুড়ল এই ঘটনায় তা নিয়ে আলোচনা করতে শুরু করেছে রাজনৈতিক মহল। তাপস মণ্ডল (Tapas Mondal) প্রাথমিক দাবি ছিল, ৩২৫ জন শিক্ষক পদপ্রার্থীর কাছ থেকে প্রায় সাড়ে ১৯ কোটি টাকা নিয়েছেন কুন্তল। পরে তিনি বলেন ২৬০০ চাকরিপ্রার্থীর কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা করে নিয়েছেন কুন্তল। এখানেই শেষ নয় এই সংক্রান্ত নথিও তাঁর কাছে রয়েছে বলে দাবি করেন।এর উত্তরে কুন্তল ঘোষ বলেন তাপস মণ্ডলের কথার কোনও গুরুত্ব তাঁর কাছে নেই। তিনি সিবিআই- এর ডাকে হাজির হয়েছিলেন এবং প্রয়োজনে ডাকলে আবার তিনি আসতে পারেন।

Previous articleড্রোনের মাধ্যমে অস্ত্র পাচারের ছক পাকিস্তানের, পাঞ্জাব থেকে উদ্ধার বিপুল আগ্নেয়াস্ত্র