প্রেসিডেন্সিতেও দেখানো হবে মোদিকে নিয়ে BBC-র তথ্যচিত্র, উদ্যোগ SFI-এর

দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে(Narendra Modi) নিয়ে বিবিসির তথ্যচিত্র(BBC documentary) ইতিমধ্যেই ব্যাপক বিতর্ক তৈরি করেছে। জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে এই তথ্যচিত্র দেখানোর উদ্যোগ নেওয়া হলেও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তা অনুমোদন করেনি। এরই মাঝে বিতর্কিত এই তথ্যচিত্র প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের(presidency University) ক্যাম্পাসে দেখাতে উদ্যোগই হলো এসএফআই। ইতিমধ্যেই কর্তৃপক্ষের কাছে তথ্যচিত্র দেখা যায় আবেদন জানানো হয়েছে যদিও তা এখনো মঞ্জুর হয়নি।

২৭ জানুয়ারি প্রেসিডেন্সি ক্যাম্পাসে মোদিকে নিয়ে বিবিসির (BBC) তৈরি বিতর্কিত তথ্যচিত্র দেখাতে চায় এসএফআই। ব্যাডমিন্টন বা বাস্কেটবল কোর্টে ডকু-সিরিজটি দেখানো হতে পারে। প্রেসিডেন্সির নিয়ম বলছে, বিশ্ববিদ্য়ালয় ক্য়াম্পাসে কোনও সিনেমা দেখাতে হলে একটি অনুমতি নিতে হয়। সেখানে স্থান ও সময় জানাতে হয়, তবে সিনেমার নাম উল্লেখ না করলেও চলে। ইমেল করে ইতিমধ্যে সেই অনুমতি চাওয়া হয়েছে। কিন্তু জবাব মেলেনি। শুধু এসএফআই নয়, আইসি ও সংঘর্ষ ছাত্র সংগঠনও এই তথ্যচিত্র দেখাতে চায়। তারা ১ ফেব্রুয়ারি দেখাতে চাইছে।

তবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অনুমতি না দিলে এসএফআই যে থামবে না সে কথা স্পষ্ট করে বুঝিয়ে দিয়েছেন প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের এসএফআইয়ের সভানেত্রী আনন্দরূপা ধর। তিনি বলেন, “রামনাম দেখানোর সময়ও কর্তৃপক্ষ সহযোগিতা করেনি। এবারও যদি তেমন হয় আমরা থামব না। তথ্যচিত্রটি দেখানো হবেই।”

এদিকে নিষেধাজ্ঞা সত্বেও মঙ্গলবার সন্ধেবেলায় জেএনইউ ক্যাম্পাসের অন্দরেই তথ্যচিত্রের প্রদর্শনী শুরু হয়। সেখানেই জমায়েত হওয়া পড়ুয়াদের উপর পাথর ছোঁড়ার অভিযোগ ওঠে আরএসএসের ছাত্র সংগঠন এবিভিপির বিরুদ্ধে। এমনকী ক্যাম্পাসের মধ্যে ইচ্ছাকৃতভাবে লোডশেডিং করিয়ে পড়ুয়াদের হেনস্তা করার অভিযোগ উঠেছে। লোডশেডিং হয়ে যাওয়ার পরে ফোনেই ছবি দেখা শুরু করেন পড়ুয়ারা। এই একই ইস্যুতে উত্তাল হয় জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ও। প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়েও এবার তথ্যচিত্রটি প্রদর্শন করার উদ্যোগ নিল বামপন্থী ছাত্র সংগঠনটি।

Previous articlePadma Awards 2023: মরণোত্তর পদ্মবিভূষণ পাচ্ছেন ORS-র জনক বঙ্গসন্তান দিলীপ মহলানবিশ, পদ্ম-তালিকায় বাংলার আরও ৩