ন্যাশনাল মেডিক্যাল কমিশনের পুরনো প্রতীক ফেরাতে রাজ্যসভায় সওয়াল শান্তনু সেনের

এনএমসির লোগো পরিবর্তনের প্রতিবাদে সরব হয়েছে বিভিন্ন চিকিৎসক সংগঠনও।

ন্যাশনাল মেডিক্যাল কমিশনের প্রতীক থেকে অশোক স্তম্ভকে সরিয়ে বসানো হয়েছে ধন্বন্তরীর মূর্তি। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই দেশজুড়ে প্রতিবাদ শুরু হয়েছে।তৃণমূলের তরফে রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেন ন্যাশনাল মেডিক্যাল কমিশনকে চিঠি দিয়ে ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন আগেই। এনএমসির লোগো পরিবর্তনের প্রতিবাদে সরব হয়েছে বিভিন্ন চিকিৎসক সংগঠনও। এবার সেই বিতর্কের আঁচ গিয়ে পড়ল সংসদেও।

সোমবার বিষয়টি নিয়ে রাজ্যসভার জিরো আওয়ারে সওয়াল করলেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ ডঃ শান্তনু সেন। এদিন শান্তনু সেন বলেন, দেশের সমগ্র চিকিৎসক মহল পুরনো লোগো ফিরে পেতে চাইছে। তিনি বলেন,৬৪ বছরের পুরনো আইনকে বদল করে ২০২০ তে ন্যাশনাল মেডিকেল কাউন্সিল অ্যাক্ট আনা হয় দেশে। রাজ্যসভায় শান্তনু সেনের  সওয়াল, ন্যাশনাল মেডিক্যাল কমিশনের লোগোয় ধন্বন্তরির ছবি বিজেপি শাসিত কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশে করা হগয়েছে, নাকি ন্যাশনাল মেডিকেল কমিশন নিজেরাই এই পরিবর্তন ঘটিয়েছে, তা জানা নেই।লোগোতে ছবি বদলের কোনও প্রয়োজন নেই। কারণ, ধন্বন্তরির লোগো শুধুমাত্র একটি ধর্মের দিকে নির্দেশ করে।

এমনকি ডাক্তারিতে শপথ নেওয়ার সময় যে শপথ বাক্য পাঠ করানো হয় তার পরিবর্তন নিয়েও রাজ্যসভায় জোরদার সওয়াল করেন শান্তনু সেন। নাম না করে গেরুয়া শিবিরকে লক্ষ্য করে তিনি বলেন, আমরা জানি রাম আমাদের ভগবান। কিন্তু বর্তমানে রামকেও রাজনৈতিক ফায়দা তোলার জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে। তিনি বলেন, লোকসভায় বিজেপির সংসদ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সাংসদকে লক্ষ্য করে অশ্লীল ইঙ্গিত এবং কথা বললেও এথিক্স কমিটি এবং প্রিভিলেজ কমিটি তার বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ  নেইনি । যুক্তি দিয়ে তার দাবি, ধর্মনিরপেক্ষতা বজায় রাখার জন্য অবিলম্বে ইন্ডিয়ান মেডিকেল কাউন্সিলের পুরনো লোগোকে ফিরিয়ে আনতে হবে।

Previous articleKIFF: “সমাজ সিনেমাকে অনুসরণ করে না”, অক.পট মনোজ
Next articleশিবরাজ অতীত, মধ্যপ্রদেশের নতুন মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন মোহন যাদব