পদপিষ্ট হয়ে বর্ধমান স্টেশনে গুরুতর জখম কমপক্ষে ১১জন যাত্রী

ট্রেন ধরতে হুড়োহুড়ি। ভিড়ের চাপে পদপিষ্ট হয়ে বর্ধমান স্টেশনে জখম বেশ কয়েকজন যাত্রী। ১১জনকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে দুই শিশুও রয়েছে। এক মহিলার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

শুক্রবার দুপুর সাড়ে ৩টে নাগাদ, ৮ নম্বর প্ল্যাটফর্মে দাঁড়িয়ে ছিল আপ পুরুলিয়া লোকাল। সেই সময় ৫ নম্বর প্ল্যাটফর্মে ঢোকে ডাউন পূর্বা এক্সপ্রেস। একটি মাত্র সিঁড়ি দিয়েই চার ও পাঁচ নম্বর প্ল্যাটফর্মে ওঠা-নামা করতে হয়। কারণ, অন্যটিতে চলমান সিঁড়ি তৈরির কাজ চলায় সেটি বন্ধ। এই পরিস্থিতিতে দু’টি ট্রেনের যাত্রীদের মধ্যে ট্রেন ধরার জন্য হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। অনেক যাত্রীই পড়ে যান। তাঁদের উপর দিয়েই ছুটতে থাকেন অন্যরা। আহতদের উদ্ধার করে বর্ধমান মেডিকেল কলেজে ভর্তি করে রেলপুলিশ।
যাত্রীদের অভিযোগ, একটি মাত্র সিঁড়ি হওয়ায় প্রতিদিনই ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে। শেষ মুহূর্তে ট্রেন আসার ঘোষণা হওয়ায় বেশি হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। কিন্তু রেল কর্তৃপক্ষ উদাসীন বলে অভিযোগ।
যদিও, এই অভিযোগ মানতে চায়নি রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। আচমকাই এদিন দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে মত স্টেশন ম্যানেজারের।