আস্থা ভোট বাতিলের দাবি তুললেন ফড়নবিশ

মহারাষ্ট্রে শনিবারের আস্থাভোটকে অবৈধ ঘোষণার দাবি জানাল বিজেপি। সংবিধানের নিয়মকানুন না মেনে আস্থা ভোট করানোর অভিযোগ তুলল মহারাষ্ট্র বিধানসভার বৃহত্তম দল। এদিন দুপুর দুটোয় আস্থাভোট শুরুর পর বক্তব্য রাখতে ওঠেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। চারদফা অভিযোগ এনে আস্থাভোট বাতিলের দাবি জানান তিনি। তাঁর বক্তব্য, সংবিধান লঙ্ঘন করে সভা পরিচালিত হচ্ছে। প্রোটেম স্পিকার পদে পরিবর্তন অবৈধ। নিয়ম অনুযায়ী, আগে স্পিকার নির্বাচন করে তারপর ফ্লোর টেস্ট করতে হয়। কিন্তু স্পিকার নির্বাচনের আগেই আস্থা ভোট হচ্ছে মহারাষ্ট্রে। এই প্রক্রিয়া অবৈধ। ফড়নবিশ বলেন, মুখ্যমন্ত্রী ও মন্ত্রিসভার সদস্যরা সংবিধান মেনে শপথগ্রহণ করেননি। তাঁরা শপথবাক্য পাঠ করার সময় সোনিয়া গান্ধী, শারদ পাওয়ার ও বালাসাহেব ঠাকরের নাম উল্লেখ করেছেন। ফলে এই শপথ অবৈধ। শনিবার বিধানসভার ভিতর কিছুক্ষণ শ্লোগান-বিক্ষোভের পর প্রতিবাদে সভা বয়কট করে ওয়াকআউট করেন বিজেপি বিধায়করা। তাঁরা ভোটাভুটিতে অংশ নেননি। দেবেন্দ্র ফড়নবিশ জানান, এই আস্থাভোটের বিরুদ্ধে তাঁরা রাজ্যপালের হস্তক্ষেপ দাবি করবেন। প্রয়োজনে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়া হবে।

আরও পড়ুন-মহারাষ্ট্রে আস্থা ভোটে জিতল উদ্ধব সরকার