মোদি-অমিত নয়, দিল্লি ভোটের পর মোদি-নাড্ডা জুটি!

মোদি-অমিত জুটিতে কি এবার ঢ্যাঁড়া পড়তে চলেছে? দিল্লি বিজেপি সদর দফতরের খবর অনেকটা তেমনই। নরেন্দ্র মোদি প্রধানমন্ত্রী, অমিত শাহ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আবার ছিলেন দলের সভাপতিও। ফলে দলে বা সরকারে দ্বিতীয় স্থানটি নিয়ে কোনও বিতর্ক ছিল না। ছবি, পোস্টার, বিজ্ঞাপন থেকে সরকারি সভা, সব জায়গাতেই এই জুটি। কিন্তু দলের অন্দরেই প্রশ্ন, সরকারি অনুষ্ঠানে একসঙ্গে দুজন খুব কম জায়গাতেই যান। তা সত্ত্বেও কেন এখনও মোদি-অমিত জুটির বিজ্ঞাপন অব্যাহত? সরকারি র‍্যাঙ্ক অ্যান্ড ফাইলে একজন এক নম্বর, অন্যজন দু’নম্বর। কিন্তু সরকারি অনুষ্ঠান বাদ দিলে এবার থেকে দলীয় সভা, পোস্টার, বিজ্ঞাপন, সব জায়গাতেই দেখা যাবে দলের নতুন সভাপতি জেপি নাড্ডার ছবি। নাড্ডা সভাপতি হয়ে যাওয়ার পরেও বেশ কিছু জায়গায় মোদি-অমিতের ছবির পরিবর্তন না হওয়ায় দলের ভিতরেই প্রশ্ন ওঠে। নাড্ডা শিবিরের আবার বক্তব্য, অমিত শাহকে এমনভাবে দল প্রোজেক্ট করা শুরু করেছে, তাতে মনে হচ্ছে তিনি যেন লার্জার দ্যান পার্টি। আসলে নাড্ডাপন্থীরা অপেক্ষা করছেন দিল্লির ভোটের ফলের জন্য। তাঁরা বেশ বুঝেছেন, ভোটে ভরাডুবি হতে চলেছে বিজেপির। সেই পর্বের সমাধান হলে কড়া হাতে তিনি ধরবেন দলের রাশ। এবং নিশ্চিতভাবে সেখান থেকে ছাঁটাই হবেন অমিত ঘনিষ্ঠরা। সেই সঙ্গে মোদি-নাড্ডা জুটিকে জনমনে প্রতিষ্ঠা করতে শুরু হবে সব রকমের তোড়জোড়।