পুরনো কর্মীরাই দলের সম্পদ, বাঁকুড়ায় বললেন মুখ্যমন্ত্রী

পুরনো দিনের কর্মীদের ওপর আস্থা রাখার কথা বাঁকুড়ায় স্পষ্ট জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বললেন-
যারা পুরনো দিনের কর্মী, দলের কাছে তাঁরা সম্পদ।
যারা সাইকেল চড়ে দূরদূরান্ত থেকে দলীয় সভায় যোগ দিতে আসতেন, তাদের ভোলেনি দল।
যারা মাটির ঘরে থাকে আমি তাদের ভালোবাসি।
এরই পাশাপাশি তাঁর নিশানায় ছিল বিজেপিও।
দেশ বিক্রি করে দিচ্ছে বিজেপি।
কংগ্রেস-সিপিএম-বিজেপি তিনজনে মিলে ষড়যন্ত্র করছে।
বিজেপি শিক্ষা দেবে 2021-এর বাংলা।
কেন্দ্রের কাছে 1 লাখ টাকা পাই।
কিন্তু সেই টাকা কেন্দ্র থেকে পাইনা।
তফসিলিদের জন্য এক হাজার টাকা বার্ধক্য ভাতা, ঘোষণা্ করা হয়েছে এবারের বাজেটে।
আদিবাসীদের জন্য হাজার টাকা বার্ধক্য ভাতা দেওয়া হবে।
বাংলায় বেকারত্বের হার কমেছে।
স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নামে লোক ঢুকছে।
ধর্মের নামে উগ্রপন্থা ছড়ানো হচ্ছে।

লোকসভায় সিপিএমের ভোট পেয়েছে বিজেপি।
ভোট নিয়ে অধিকার কেড়ে নিয়েছে বিজেপি।
বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়েছে কংগ্রেস-সিপিএম।
মহারাষ্ট্র- ঝাড়খণ্ডেও ভোটে হেরেছে বিজেপি।
ওরা ছড়াচ্ছিল ঘৃণার রাজনীতি।
কিন্তু, গণতন্ত্রের জয় হল। কেজরিওয়ালের জয় হল।
বিজেপি মানুষ খুন করছে, ঘৃণা ছড়াচ্ছে।
সব রকমের অপপ্রচার ছড়াচ্ছিল বিরোধীদের নামে। টাকা ছড়াচ্ছিল।
মানুষ বিভাজনের রাজনীতি চায় না।
তা সত্ত্বেও রাজনৈতিক প্রতিহিংসা নিতে শুরু করেছিল।
একসময় কেজরিওয়ালকেও প্রচণ্ড বিরক্ত করেছিল।
এবারেও একটা কেন্দ্রীয় সরকার তার সর্বোচ্চ এজেন্সি দিয়ে দিল্লি দখল করার চেষ্টা করেছিল।
কিন্তু, মানুষের জন্য তা করতে পারেনি।
আসলে মানুষ সংকীর্ণ ভাগাভাগির রাজনীতির পছন্দ করে না।