মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল, দাবি মেট্রো কর্তৃপক্ষের

ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধনে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এই নিয়ে বিধানসভায় নিজের বেদনার কথা জানান মমতা। কিন্তু এবার সেই দাবি ওড়াল রেল। মেট্রোর দাবি, মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। নবান্নে যান মেট্রোর এক আধিকারিক। সশরীরে গিয়ে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার, যাত্রা শুরু করেছে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো। সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে করুণাময়ী পর্যন্ত চলবে ট্রেন। কিন্তু মেট্রোর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বলে অভিযোগ। এমনকী, পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, মুখ্যসচিব কাউকেই আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বলে দাবি রাজ্যের। যদিও আমন্ত্রণ জানানো হয়, স্থানীয় সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার, বিধায়ক তথা মন্ত্রী সুজিত বসু, বিধাননগরের মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তীকে। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ না জানানোর অভিযোগে রাজ্যের তরফে বয়কট করা হয় ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। মেট্রোর অবশ্য দাবি, রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের নির্দেশে মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ করতে নবান্নে যাওয়া হয়। তাঁর সচিব আমন্ত্রণের চিঠি প্রাপ্তির কথা স্বীকার করেছেন বলেও দাবি মেট্রো কর্তৃপক্ষের।

গোটা ঘটনায় বাম নেতা সুজন চক্রবর্তীর অভিযোগ, ‘‘প্রথা হল বড় কোনও কর্মসূচিতে মুখ্যমন্ত্রীকে ডাকা। কিন্তু এটা তো তিনিই শুরু করেছিলেন। টালিগঞ্জ থেকে মেট্রো সম্প্রসারণের সময় তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে ডাকা হয়নি।’’ পরিষদীয় মন্ত্রী তাপস রায় বলেন, অসৌজন্যের রাজনীতি করতে অভ্যস্ত বিজেপি। এর বেশি কিছু আশাও করা যায় না।

আরও পড়ুন-এনআরসি হলে আমি আগে ডিটেনশন ক্যাম্পে যাব: গেহলট