প্রধানমন্ত্রীর অভিযোগের কড়া জবাব ভারতের চিনা দূতাবাসের

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অভিযোগের জবাব দিয়েছে ভারতের চিনা দূতাবাস৷ শুক্রবার সন্ধ্যায় চিনা দূতাবাসের মুখপাত্র জি রং এক বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর আনা অভিযোগের কড়া প্রতিবাদ করেছেন৷

এদিন লাদাখে নাম না করে চিনকে ‘বিস্তারবাদী’ বলে অভিযুক্ত করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী৷ বলেছিলেন, “বিস্তারবাদীদের দিন শেষ, বিকাশবাদের যুগ শুরু৷”

চিনের নাম উল্লেখ না করলেও এই অভিযোগ যে তাদের বিরুদ্ধে, তা বুঝেছে চিন সরকার৷ তাই বেজিং-এর নির্দেশে মোদির অভিযোগের জবাবে ভারতের চিনা দূতাবাসের মুখপাত্র জি রং এক বিবৃতিতে বলেছেন, “১৪টির মধ্যে ১২টি প্রতিবেশীর সঙ্গে শান্তিপূর্ণ আলোচনার মাধ্যমেই সীমান্ত চিহ্নিত করেছে চিন৷ স্থল সীমান্তকে বন্ধুত্বপূর্ণ সহযোগিতার বন্ধনেই চিহ্নিত করা হয়েছে৷ বেজিংকে বিস্তারবাদী বলে অভিযুক্ত করা একদমই ভিত্তিহীন৷ এর অর্থ চিনের সঙ্গে প্রতিবেশীদের বিবাদকে অতিরঞ্জিত করে দেখানো ছাড়া আর কিছুই নয়৷”

মোদির লাদাখ সফর যে তারা পছন্দ করেনি, তা এদিন সকালেই বুঝিয়েছে বেজিং৷ চিনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র আগেই বলেছেন, “যখন সামরিক এবং কূটনৈতিক স্তরে সীমান্ত উত্তেজনা প্রশমনের চেষ্টা করছে ভারত এবং চিন, তখন কোনও পক্ষেরই এমন পদক্ষেপ করা উচিত নয়, যাতে উত্তেজনা আরও বাড়ে৷”