ঈদের সকালে স্বাধীনতা দিবস পালন সাবেক ছিটমহলে

ভারতের স্বাধীনতা এসেছিল ১৯৪৭ সালের ১৫ অগাস্ট। কিন্তু কোচবিহারে স্বাধীনতা দিবস পালিত হয় দুবার। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। কারণ, ২০১৫ সালের পয়লা অগাস্ট মধ্যরাতে কোচবিহারের ৫১ টি ভূখণ্ড যুক্ত হয় ভারতের সঙ্গে। ছিটমহল বিনিময়ের পরে ২০১৫ সালের পয়লা অগাস্ট মধ্যরাতে সেখানে পতাকা উত্তোলন করে প্রথম স্বাধীনতার সাধ পেয়েছিলেন ১১ হাজার ৯৩৩ জন বাসিন্দা।তারপর থেকে প্রতি বছর এইদিন সাবেক ছিটমহলগুলোতে পতাকা উত্তোলিত হয় স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের জন্য।

কোচবিহারের সীমান্ত লাগোয়া ছিটমহল বিনিময় হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং কেন্দ্রীয় সরকারের তত্ত্বাবধানে। ভারতের মধ্যে থাকা বাংলাদেশ ভূখণ্ড এবং বাংলাদেশের মধ্যে থাকা ভারত ভূখণ্ড ছিটমহল নামে পরিচিত ছিল। এখানকার অধিবাসীদের না ছিল কোন পরিচয় পত্র না ছিল কোন নাগরিকত্ব। না ছিল তাদের কোনো অধিকার। ৬৪ বছরের লড়াইয়ের শেষে এই অধিকার তাঁরা পেয়েছিলেন। তাই তাদের কাছে আজকের দিনটি স্বাধীনতা দিবস হিসেবে পরিচিত।
এই লড়াইয়ে শামিল দীপ্তিমান সেনগুপ্ত বলেন, প্রতি বছরের মতো এই বছরও সাবেকি ছিটমহলগুলিতে পতাকা উত্তোলন হয়। মধ্যরাতে প্রতিটি বাড়িতে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করা হয়েছে। এবার একই দিনে বকরি ঈদ পড়ায় একটি বাড়তি আনন্দ সবার মধ্যেই। যদিও এই পরিস্থিতিতে বড় জমায়েত করে উৎসব করা সম্ভব নয়। তবুও নিজের নিজের জায়গায় এই দিনটি আনন্দের সঙ্গে পালন করছেন তাঁরা।