রাজবাড়িতে চলল গুলি, রাজার গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধার!

রাজবাড়ি থেকে হঠাৎ গুলির শব্দ। রীতিমতো চাঞ্চল্য পড়ে যায় চারিদিকে। অবশেষে রাজবাড়ির ভেতর থেকেই উদ্ধার হল প্রবীণ রাজার রক্তাক্ত গুলিবিদ্ধ দেহ। গুলি করে আত্মঘাতী হয়েছেন বিষ্ণুপুর মল্লরাজ বংশের অন্যতম বর্ষীয়ান সদস্য সলিল সিংহ ঠাকুর। এখন আর সেদিন নেই। রাজত্ব গিয়েছে বহুদিন। রাজপাটও নেই। তবু এলাকায় পরিচিত ছিলেন রাজা বলেই। শনিবার সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ নিজের বাসভবনের বসার ঘরে বন্দুক থেকে গুলি চালিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। পরিবার সূত্রে খবর, গুলি গলায় লেগে মাথা ভেদ করে বেরিয়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গেই মৃত্যু হয় সাবেক রাজঘরানার অন্যতম প্রবীণ সদস্যের।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বিষ্ণুপুর থানার পুলিশ। দেহটিকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়। তবে রাজার মৃত্যুতে রহস্য দানা বেঁধেছে। এটি খুন, নাকি আত্মহত্যা? তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ । শুরু হয়েছে তদন্ত। পুলিশ জানিয়েছে , বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন সলিল সিংহ ঠাকুর। মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান, হয়তো অবসাদ থেকেই নিজে গুলি চালিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন সলিল সিংহ ঠাকুর।

যদিও এই বিষয়টি নিয়ে কোনওরকম মুখ খুলতে চায়নি রাজ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা।