ভারতীয় সেনা নিয়ে আর ইচ্ছেমত সিনেমা নয়, প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ছাড়পত্র বাধ্যতামূলক

এবার থেকে ভারতীয় সেনাদের নিয়ে ছবি তৈরি করতে হলে আগাম প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ‘নো অবজেকশন সার্টিফিকেট’ বাধ্যতামূলক৷ সিবিএফসি বা Central Board of Film Certification-কে চিঠি পাঠিয়ে একথা জানিয়ে দিলো কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রক৷ শুধুই সিনেমা নয়, এই একই বিধি কার্যকর হচ্ছে ওয়েব সিরিজের ক্ষেত্রেও।

পর্দায় যাতে ভারতীয় সেনার মানহানি ঘটিয়ে কোনও তথ্য তুলে না ধরা হয়, সেই কারণেই প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের এই সিদ্ধান্ত। শুক্রবার প্রতিরক্ষামন্ত্রক এই নির্দেশিকা জারি করেছে।

গত বেশ কয়েক বছর ধরেই দেশপ্রেম, ভারতীয় সেনাদের বীরত্ব ইত্যাদি নিয়ে একাধিক ছবি তৈরি হয়েছে৷ ভারতীয় জওয়ানদের নিয়ে তৈরি এসব ছবি বাণিজ্যিকভাবে সফলও হয়েছে। প্রায় সব ছবিতেই উঠে এসেছে সীমান্ত এলাকার অশান্ত পরিস্থিতি, কাশ্মীরের অস্থির চিত্র অথবা কারগিল যুদ্ধ, সার্জিক্যাল স্ট্রাইক৷ সম্প্রতি গালওয়ান উপত্যকায় ভারত-চিন সংঘর্ষ নিয়ে ছবি তৈরির কথা ঘোষণা করেছেন অজয় দেবগন।
ভারতীয় সেনার কাহিনী, সীমান্ত পরিস্থিতি, শত্রুপক্ষ দেশকে মোক্ষম জবাব এইসব নিয়ে তৈরি এ ধরনের ছবি বারবার মেগাহিট হয়েছে৷ তাই ফৌজিদের নিয়ে ছবি বানানোর একটা ঝোঁক সবসময়ই আছে৷

কিন্তু এবার থেকে আর চাইলেই আর পরিচালক- প্রযোজকরা ভারতীয় সেনাদের নিয়ে কোনও ছবি করতে পারবেন না, ইচ্ছামতো চিত্রনাট্যেও ফৌজিদের আনতে পারবেন না।

নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, ভবিষ্যতে ভারতীয় সেনাকে নিয়ে কোন সিনেমা, তথ্যচিত্র বা ওয়েব সিরিজ তৈরি করতে চাইলে আগাম সব কিছু জানাতে হবে, চিত্রনাট্য জমা দিতে হবে৷

সব খতিয়ে দেখে অনুমতি দেওয়া হলেও বাণিজ্যিকভাবে ছবি মুক্তির আগে প্রতিরক্ষা মন্ত্রককে জমা দিতে হবে।
সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রক যদি ছবি দেখে মনে করেন, ছবিটি বাণিজ্যিকভাবে মুক্তির ক্ষেত্রে আপত্তিজনক কিছু নেই। তাহলেই প্রতিরক্ষা মন্ত্রক থেকে পাওয়া যাবে নো অবজেকশন সার্টিফিকেট।