আবুধাবিতে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে মুখ থুবড়ে পড়ল কলকাতা নাইট রাইডার্স

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স: ১৯৫/৫ (২০ ওভার)

কলকাতা নাইট রাইডার্স: ১৪৬/৯ (২০ ওভার)

আবুধাবিতে প্রথম ম্যাচে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের দেওয়া টার্গেট ছুঁতে পারলো না কেকেআর।
মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে পাহাড়প্রমাণ ১৯৬ রান তাড়া করতে নেমে মুখ থুবড়ে পড়ল কলকাতা নাইট রাইডার্স। মুম্বইয়ের দুরন্ত বোলিংয়ের সামনে নাইটদের সব ব্যাটসম্যানই অসহায়ের মতো আত্মসমর্পণ করল!

আরও পড়ুন- মানুষ মানুষের জন্য! করোনা আক্রান্ত TMC নেতাকে প্লাজমা দিতে ছুটলেন CPM নেতা
কেকেআর ম্যাচ হারল ৪৯ রানে। নির্ধারিত ২০ ওভারে কেকেআর ৯ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রান তুলতে পারে।

আরও পড়ুন- কোভিড মোকাবিলায় দুর্যোগ ত্রাণ তহবিলের ৫০ শতাংশ খরচ করতে পারবে রাজ্য: প্রধানমন্ত্রী
আইপিএলে মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে রেকর্ড বরাবরই বেশ খারাপ শাহরুখ খানের দলের ৷ বুধবার আবু ধাবিতেও টস হেরে ব্যাট করতে নেমে মুম্বইয়ের দুরন্ত ব্যাটিং পারফরম্যান্সই দেখা গেল ৷ মরু শহরে জমে উঠল ‘হিটম্যান শো’-ই ৷ শিবম মাভির বলে আউট হওয়ার আগে রোহিত শর্মা খেলে যান ৫৪ বলে ৮০ রানের দুর্দান্ত একটা ইনিংস ৷ মেরেছেন ৩টি চার এবং ৬টি বিশাল ছক্কা ৷ মুম্বইয়ের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এদিন রান পেয়েছেন সূর্যকুমার যাদবও ৷ ২৮ বলে ৪৭ রান করেন তিনি ৷

আরও পড়ুন- BREAKING: ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হলেন রেল প্রতিমন্ত্রী সুরেশ অঙ্গাদি
নাইট বোলারদের মধ্যে কারোর পারফরম্যান্সই আহামরি কিছু নয় ৷ সন্দীপ ওয়ারিয়ার ৩ ওভারে ৩৪ রান, প্যাট কামিন্স ৩ ওভারে ৪৯, মাভি ৪ ওভারে ৩২ রানে ২ উইকেট, সুনীল নারিন ৪ ওভারে ২২ রান দিয়ে ১ উইকেট এবং রাসেল ২ ওভারে ১৭ রান দিয়ে ১ উইকেট নেন ৷
ম্যাচে এদিন রান তাড়া করতে নেমে কেকেআরের হয়ে কামিন্স সর্বোচ্চ ৩৩ ও দীনশ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩০ রান করেছেন। মর্গ্যান ১৬, রানা ২৪ ও রাসেল ১১ রান করেন। ১৬ তম ওভারে ম্যাচ ঘোরানো পারফর্ম্যান্স জসপ্রীত বুমরাহের। ওভারে দ্বিতীয় বলে রাসেলকে বোল্ড ও চতুর্থ বলে স্লোয়ারে মর্গ্যান উইকেটকিপারের হাতে বন্দি হন বুমরাহের সৌজন্যে । ৪ ওভারে ৩২ রান খরচে বুমরাহ ২টি উইকেট নিয়েছেন।