পোস্টমর্টেম: যোধপুর পার্কে বলিউড অভিনেত্রী মদ্যপ ছিলেন, মৃত্যু মাল্টি-অর্গান ফেলিওরে

শুক্রবার বিকালে যোধপুর পার্কের বাড়ি থেকেই উদ্ধার হয় বলিউড অভিনেত্রী আর্যা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (৩৫) মৃতদেহ। “ডার্টি পিকচার”-খ্যাত এই অভিনেত্রীর রহস্যমৃত্যুর খবর চাউর হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বিনোদন জগতে। মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। এবার সেই রিপোর্ট প্রকাশ্যে এলো।

ময়নাতদন্তের রিপোর্ট-এ জানা গিয়েছে, হার্ট-কিডনি-সহ মাল্টিঅর্গান ফেলিওর হয়েই মৃত্যু অভিনেত্রীর। পাশাপাশি হয়েছিল সিরোসিস অফ লিভারও। আর এই দুয়ের জেরেই মৃত্যু হয়েছে আর্যার। আর ঘরের মেঝেতে পড়ে যাওয়ার কারণে মাথা ফেটে যায় তাঁর। ঠোঁট ও নাকেও আঘাত পান তিনি। মদ্যপ থাকায় বেসামাল হয়ে পড়ে গিয়েছিলেন বলেই অনুমান পুলিসে। কারণ, তাঁর শরীর থেকে প্রায় ২ লিটার মদও পাওয়া গিয়েছে বলে উঠে এসেছে রিপোর্টে।

পাশাপাশি, এই রিপোর্ট পাওয়ার আগেই আর্যার রহস্যমৃত্যুতে বেশকিছু নতুন তথ্য উঠে এসেছে। যোধপুর পার্কের ওই বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে চিকিৎসা সংক্রান্ত বেশ কিছু নথি ও রক্তমাখা টিস্যু পেপার। চিকিৎসার ওই কাগজপত্র থেকে পুলিশ জানতে পেরেছে, একবছর আগে হেপাটাইটিস বি-তে আক্রান্ত হয়েছিলেন “ডার্টি পিকচার”-এর এই অভিনেত্রী। ভুগছিলেন কিডনির সমস্যাতেও। কিন্তু বছরখানেক ধরে চিকিৎসা করাচ্ছিলেন না তিনি। এমনকী মাঝেমধ্যেই নাক-মুখ থেকে রক্ত পড়ত অভিনেত্রীর।

তদন্তে করতে নেমে লেক থানার পুলিশের দাবি, ঘটনার দিন বাইরে থেকে খাবার আনালেও, তা খাননি আর্যা। এছাড়া, ওই বাড়ির একতলা ও দোতলার দরজা বন্ধ থাকলেও খোলা ছিল ছাদের দরজা।

তদন্তে নেমে প্রথামিকভাবে পুলিশ জানতে পেরেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরের আগেই মৃত্যু হয়েছে অভিনেত্রীর। জানা যাচ্ছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে রুটি করে গিয়েছিলেন বাড়ির পরিচারিকা। কিন্তু তা খাননি অভিনেত্রী। শুক্রবার, সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ পরিচারিকা কাজে এলে ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। বেডরুমের খাটের নীচ অভিনেত্রীর দেহ উপুড় হওয়া অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখতে পাওয়া যায়। ব্ল্যাক টপ ও ব্ল্যাক প্যান্ট পরেছিলেন অভিনেত্রী। পাশের একটি ঘর থেকে দুটি মদের বোতল পাওয়া গিয়েছে। ঘরে তাঁর পোষা কুকুরও ছিল।

স্থানীয় সূত্রে খবর, গতকাল সকাল থেকে আর্যাকে দরজা খুলতে না দেখে এবং পরিচারিকা এসে ডাকাডাকি করার পরও সাড়া না মেলায় প্রতিবেশিরাই পুলিশে খবর দেন। এরপরই লেক থানার পুলিশ গিয়ে অভিনেত্রীকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেন। বেশ কিছুদিন ধরেই একাকিত্বে ভুগছিলেন অভিনেত্রী।

আরও পড়ুন-মর্মান্তিক! মেয়ের সঙ্গে খেলতে গিয়ে মৃত্যু বাবার