নেপাল, শ্রীলঙ্কায় বিজেপি সরকার গঠনের পরিকল্পনা অমিত শাহের! বলেন কী বিপ্লব দেব?

ভারতের বাইরের প্রতিবেশি দেশগুলিতেও নাকি বিজেপির সরকার (bjp govt.) গঠনের পরিকল্পনা নিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (amit shah)! এমনই বিস্ফোরক দাবি করে বসলেন ত্রিপুরার (tripura) মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব (biplab dev)। ইতিপূর্বে নানারকম বিতর্কিত, হাস্যকর ও উদ্ভট কথা বলে নজর কেড়েছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী (chief minister of tripura)। সম্ভবত সেই তালিকায় এবার আরেকটি যোগ হল। তবে এবারের বিষয়টি রীতিমত গুরুতর। কারণ এর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক ও কূটনৈতিক বিষয় জড়িত। ফলে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর দাবি ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

ঠিক কী বলেছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব? আগরতলার রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবনে এক অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, এবার বিজেপি সরকার হবে নেপাল ও শ্রীলঙ্কায়। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ত্রিপুরা সফরে এসে নেপাল ও শ্রীলঙ্কায় বিজেপি সরকার তৈরির বিষয়ে আলোচনা করে গিয়েছেন। ভারতের সর্বাধিক রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতা দখল করার পরেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হবে। মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, কমিউনিস্টদের দাবি তারা নাকি আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক দল। বিভিন্ন দেশে কমিউনিস্ট পার্টির সরকার চলছে। কিন্তু এখন বিজেপি বিশ্বের বৃহত্তম দল। তাই অন্য দেশেও বিজেপি সরকার হতেই পারে। বিপ্লব দেব বলেন, আগরতলায় এসে অমিত শাহ বলে গিয়েছেন, নেপাল ও শ্রীলঙ্কার দিকে বিশেষ নজর দেওয়া হচ্ছে।

মুখ্যমন্ত্রীর এই দাবির পরেই ফের রাজনৈতিক মহলে ‘হাস্যকর’ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি বিপ্লব দেবের এমন দাবি কূটনৈতিক স্তরে বিতর্ক তুলবে এবং তাতে ভারতকে অস্বস্তিতে পড়তে হবে বলেই মনে করছেন আন্তর্জাতিক সম্পর্কের বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের যুক্তি, কোনও একটি সার্বভৌম দেশে কী করে ভারতের একটি রাজনৈতিক দল ছড়ি ঘোরাতে পারে? কমিউনিস্ট পার্টি আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বিভিন্ন দেশে পরিচালিত হয় সংশ্লিষ্ট দেশের অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে। সেরকমই কি কোনও পদক্ষেপ নিতে চলেছে বিজেপি? এমন প্রশ্ন উঠে যাচ্ছে।

এদিকে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের মন্তব্যকে তীব্র কটাক্ষ করেছেন প্রাক্তন সিপিএম সাংসদ জিতেন্দ্র চৌধুরী। তিনি বলেছেন, এমন পদক্ষেপ হল সরাসরি প্রতিবেশি দেশগুলির অভ্যন্তরীণ ও বিদেশনীতির উপর হস্তক্ষেপ। মুখ্যমন্ত্রীর এই দাবির ব্যাখ্যা দিন বিজেপি নেতৃত্ব ও প্রধানমন্ত্রী। প্রতিবেশি দেশে বিজেপির সরকার গঠনের পরিকল্পনা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছে ত্রিপুরা প্রদেশ কংগ্রেস। দলের সহ সভাপতি তাপস দাস জানান, ভারত কখনোই সাম্রাজ্যবাদী চিন্তায় বিশ্বাসী নয়। দুর্ভাগ্যবশত, ত্রিপুরার মু়খ্যমন্ত্রী সাম্রাজ্যবাদী মানসিকতার পরিচয় দিচ্ছেন। নেপাল ও শ্রীলঙ্কা দুটি স্বাধীন ও সার্বভৌম দেশ। কোনওভাবেই তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করা উচিত নয়। মুখ্যমন্ত্রীর এই দাবি জাতীয়তাবাদ বিরোধী। তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

আরও পড়ুন:আব্বাসের দাবি, ৬৫- ৭০ আসন দিতে হবে, নতুন চাপে বাম-কং জোট

প্রসঙ্গত, ত্রিপুরায় বিজেপি সরকার গঠনের পর থেকেই একাধিকবার নানা বেফাঁস মন্তব্যের জন্য হাস্যাষ্পদ ও সমালোচিত হয়েছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। এই কারণে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে বলে অভিযোগ রাজ্য বিজেপির একাংশের। তাঁদের দাবি, দ্রুত ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বদল করা হোক। তা না হলে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিকে বড় ক্ষতির মুখে পড়তে হবে। বিপ্লব দেবের সর্বশেষ এই বিস্ফোরক মন্তব্যের পর বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতারা এখন কী বলেন সেটাই দেখার।

Advt