সবই মায়া, বিজেপি-প্রসেনজিৎ “ঘনিষ্ঠতা” নিয়ে টলিউডের বুম্বাদাকে কটাক্ষ শ্রীলেখার

“শীঘ্রই প্রসেনজিত (Prosenjit) বিজেপিতে (BJP) যোগ দেবেন। এবং এটাই তাঁর আসল স্বরূপ।” এবার সরাসরি প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করলেন শ্রীলেখা মিত্র (Sreelekha Mitra)। ইন্ডাস্ট্রিতে প্রসেনজিৎ ওরফে বুম্বাদার সঙ্গে একেবারেই ভালো সম্পর্ক নয় ঠোঁটকাঁটা অভিনেত্রী শ্রীলেখার। যেভাবে প্রায় প্রতিদিনই টলিপাড়ার (Tollywood) বড়-মেজো-ছোট অভিনেতারা সক্রিয় রাজনীতিতে নাম লেখাচ্ছেন, তা নিয়েই আরও একবার বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন শ্রীলেখা মিত্র। এবার তাঁর আঙুল প্রসেনজিতের দিকে। অভিনেতার নাম নিয়ে তাঁকে সরাসরি বিঁধলেন শ্রীলেখা। তাঁর দাবি, ধীরে ধীরে বাংলার এই সুপারস্টারের আসল রূপ প্রকাশ্যে আসছে।

একটা সময় বাংলা ইন্ডাস্ট্রির স্বজনপোষণ নিয়ে সরাসরি সুর চড়িয়ে প্রসেনজিতের বিরুদ্ধে মুখ খুলে রীতিমতো বিস্ফোরক

মন্তব্য করেছিলেন শ্রীলেখা। কিন্তু তখন তাঁর অভিযোগকে সকলে মিথ্যা প্রমাণ করার চেষ্টা করেছিলেন। এবার প্রসেনজিতের বিজেপি “ঘনিষ্ঠতা”‘র পর শ্রীলেখা বলছেন, “এবার সকলের কাছে এঁদের আসল মুখগুলো বেরিয়ে আসবে। এঁদের মানসিকতা প্রকাশিত। এঁরা কেমন মানুষ সেটা জানা যাবে। আমার নিন্দুকেরা যারা আমাকে মিথ্যেবাদী প্রমাণ করার চেষ্টা করেছিলেন, তাঁরা আশা করি খানিকটা উত্তর পেলেন।”

এখানেই শেষ নয়। শ্রীলেখার চাঞ্চলকর দাবি, এখন ইন্ডাস্ট্রির অনেকেই টাকা নিয়ে রাজনীতির ময়দানে নামছেন। তাঁর কাছেও এমন প্রস্তাব ছিল। কিন্ত নিজের নীতি-আদর্শ বিসর্জন দিয়ে সেই পথে হাঁটতে চাননি তিনি।

অভিনেত্রীর কথায়, “প্রচুর লোকজন বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন। অনেকে টাকা নিয়ে মানুষের কাজ করতে যাচ্ছে। ঠিক যেভাবে শো করে বা টাকা নিয়ে ফিতে কাটে বা বিয়ে বাড়িতে হাজিরা দিতে যায়। ঠিক সেভাবেই টাকা নিয়ে যারা রাজনীতির র বোঝে না তাঁরাও মানুষের কাজ করতে যাচ্ছে।আমার কাছেও বিজেপিতে যোগদানের প্রস্তাব ছিল। হয়তো টাকাও দেওয়া হত। কিন্তু বিজেপির সঙ্গে আদর্শগতভাবে আমি সম্পূর্ণ ভিন্ন মেরুতে অবস্থান করি”।

 

উল্লেখ্য, সম্প্রতি অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা গিয়েছিল বিজেপি নেতা অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়ের। বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি অভিনেতার হাতে নিজের লেখা বই ‘অমিত শাহ অ্যান্ড দ্য মার্চ অফ বিজেপি’ বইটি তুলে দেন তিনি। সেই ছবি আবার সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টও করেন বিজেপি নেতা। যা নিয়ে এই মুহূর্তে রীতিমতো সরগরম রাজ্য রাজনীতি। তারও আগে গত ২৩ জানুয়ারি নেতাজি জন্ম জয়ন্তীতে কলকাতার ভিক্টরিয়া মেমোরিয়াল প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত ছিলেন প্রসেনজিৎ। সেখানে চা-চক্রে একান্ত আলাপচারিতায় মোদির সঙ্গে দেখা গিয়েছিল অভিনেতাকে। যদিও সেটা ছিল সরকারি অনুষ্ঠান। তবে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে, তাহলে কি এবার প্রসেনজিতও গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে চলেছেন? বিজেপি বা প্রসেনজিতের তরফে অবশ্য বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বীকার করে নেহাত সৌজন্য সাক্ষাৎ বলা হয়েছে।

 

কিন্তু অভিনেত্রী শ্রীলেখার দাবি, প্রসেনজিত বিজেপিতেই যোগ দেবেন। এবং এটাই তাঁর আসল স্বরূপ। বিজেপি নেতার সঙ্গে প্রসেনজিতের ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে অভিনেত্রী তেমনটাই লিখছেন, এবং সেইসঙ্গে কটাক্ষের ছলে পোস্টের সঙ্গে #সবইমায়া হ্যাশট্যাগটি জুড়ে দিয়েছেন।

Advt