বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়: নয়া স্লোগানে নাগরাকাটা মাতালেন অভিষেক

বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়-

শনিবারই এই নতুন স্লোগান সামনে আনলো তৃণমূল কংগ্রেস (Tmc)। আর সেদিনই জলপাইগুড়ির (Jalpaiguri) নাগরাকাটা সভা করতে গিয়ে নতুন স্লোগান (Slogan) কর্মী-সমর্থকদের মাতালেন তৃণমূল সাংসদ তথা যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Benarjee)।
“সাগর থেকে পাহাড় মানুষের রায়/ পড়ে নাও লেখা আছে আকাশের গায়ে/ উঠছে আওয়াজ পাড়ায় পাড়ায়/ আমাদের সবার শিরায় শিরায়/ বহিরাগতদের দাও বিদায়/ বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়।”

সভার প্রথমদিকে সুর নরম থাকলেও পরে কেন্দ্রের মোদি সরকার ও বিজেপির বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে দেখা যায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। নাগরাকাটা ইউরোপিয়ান ক্লাব ময়দানের জনসভার বলেন, ‘‘কাকে ভোট দেবেন, সেটা আপনাদের সিদ্ধান্ত। আমরা আপনাদের জন্য মাথা নত করে ৫ বছর কাজ করব”।

দলবদলুদের কটাক্ষ করে তৃণমূল সাংসদ বলেন, “চোরেরা দল ছেড়েছে, বাঁচা গেছে। পোকামাকড় এক ক্ষেত থেকে অন্য খেতে চলে গিয়েছে। তাতে দলের ক্ষতি হয়নি”। অভিষেকের অভিযোগ, টাকা দিয়ে এমএলএ-এমপি (Mla-Mp) কিনছে বিজেপি। “চোরেরা এখন ওদের দলেই গিয়েছে”।

এরপরই কেন্দ্রের মোদি সরকার এবং বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হন অভিষেক। তিনি বলেন, যাঁরা মা দুর্গাকে অপমান করছে। তাঁরা বাংলায় ক্ষমতায় আসতে চাইছে। এরা মেয়েদের সম্মান করে না। সেই কারণেই এরা ‘সিয়ারাম’ বলে না ‘জয় শ্রীরাম’ বলে।

অভিষেক অভিযোগ করেন, উন্নয়নের নামে দেশের টাকা লুট করেছে বিজেপি। “এমন চাওয়ালার জন্য সবার চায়ের কাপ খালি”। নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) প্রতিশ্রুতির 15 লাখ টাকা এখনও মানুষ পাইনি। কিন্তু প্রতিশ্রুতি পালন করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। তিনি সবার জন্য স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করে দিয়েছেন- মন্তব্য অভিষেকের। তিনি কটাক্ষ করে বলেন, ডবল ইঞ্জিন সরকার এলে কাজ হবে একথা বলে পরোক্ষে মোদি সরকার স্বীকার করে নিয়েছে যে বাংলার জন্য তারা কোনো কাজ করেনি। দিল্লি থেকে রিমোট কন্ট্রোলে বাংলা চালাবে- এটাই বিজেপির পরিকল্পনা।

প্রত্যয়ী অভিষেক এদিন ফের জানান, আড়াইশো বেশি আসন নিয়ে ক্ষমতায় থাকবে তৃণমূলই। তিনি বলেন, “নাগরাকাটার ভূমিপুত্রই এখানে প্রার্থী হবে। সেই জিতে আগামী পাঁচ বছর উন্নয়নের কাজ করবে সে দায়িত্ব আমি নিলাম”।

আরও পড়ুন:বাংলার জনতাকে ২৮ শে ব্রিগেডমুখী করতে বামেদের ভরসা ‘টুম্পা সোনা’

এদিন নাগরাকাটা অভিষেকের জনসভায় ভিড় উপচে পড়ে। তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে থেকে বারবার আওয়াজ ওঠে, “খেলা হবে”। অভিষেক বলেন, বিজেপি এসে শুনে যাক নাগরাকাটা গর্জন।

Advt