নিশানায় আম্বানি, বিস্ফোরক রাখার কথা স্বীকার করল জইশ-উল-হিন্দ

ইজরায়েলি দূতাবাসের কাছে বিস্ফোরণের পর শিল্পপতি মুকেশ আম্বানির বাড়ির সামনে বিস্ফোরক রাখার দায় নিল জইশ-উল-হিন্দ। একটি টেলিগ্রামের মাধ্যমে হামলার দায় স্বীকার করেছে তারা। স্করপিও থেকে ২০টি জিলেটিন স্টিক পাওয়ার গোটা ঘটনার ট্রেলার মাত্র। এরপর আরও বড়ও নাশকতার ছক রয়েছে। টেলিগ্রামে এমনই এক হুমকি জানিয়েছে জইশ-উল-হিন্দ। টেলিগ্রামে প্রকাশিত ওই বিবৃতি থেকে স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছে এশিয়ার সবচেয়ে ধনী শিল্পপতিও তাদের নিশানায় রয়েছে। তবে টেলিগ্রাম বার্তার সত্যতা এখনও যাচাই করা হয়নি।

জইশ-উল-হিন্দের নামে টেলিগ্রামে যে বার্তাটি গোয়েন্দাদের হাতে এসেছে, তাতে জইশ জানিয়েছে ‘যে বন্ধু আম্বানির বাড়ির সামনে বিস্ফোরক বোঝাই গাড়ি রাখার দুঃসাহসিক কাজ করেছে, সে নিরাপদে নিজের বাড়ি পৌঁছে গিয়েছে। কিন্তু এটা একটা ট্রেলার মাত্র, বড় ছক আসছে।  আটকাতে পারলে আটকে দেখাও। দিল্লিতে তোমাদের নাকের ডগায় বিস্ফোরণ ঘটানোর সময়ও কিছু করতে পারোনি। মোসাদের সঙ্গে হাত মিলিয়েও কিনারা হয়নি। কী করণীয় তা খুব ভাল করেই জানো তোমরা। নির্দেশ মেনে শুধু টাকা পাঠিয়ে দাও’।

বিবৃতিতে নগদের বদলে টাকা বিটকয়েনে দিতে হবে বলেও দাবি করা হয়েছে। গোটা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে পুলিশ। তবে এই ঘটনার সঙ্গে কে বা কারা যুক্ত থাকতে পারে, তাঁর কিনারা করতে পারেনি পুলিশ।

Advt