জিতেন্দ্রর সঙ্গে কয়লা কাণ্ডের যোগ থাকলে দল দায় নেবে না, স্পষ্ট জানালেন দিলীপ

রাজ্যে কয়লা পাচার(coal smuggling) কাণ্ডের তদন্তে হাত ধুয়ে নেমে পড়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই(CBI)। আর এই কাণ্ডে তৃণমূলের(TMC) একাধিক নেতার যোগ রয়েছে সভামঞ্চে তা বারবার দাবি করেছে বিজেপি(BJP)। অবশ্য এই দোষে কম দুষ্ট নন, তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া আসানসোলের প্রাক্তন মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি(Jitendra Tiwari)। কয়লা পাচারের সঙ্গে জিতেন্দ্র তিওয়ারি যোগ রয়েছে এহেন গুঞ্জন আসানসোলে কান পাতলেই শোনা যায়। সম্প্রতি সেই জল্পনা আরও জোরালো হয়ে উঠেছে। এহেন জিতেন্দ্রর বিজেপি যোগ নিয়ে ক্ষুব্ধ আসানসোলের গেরুয়া শিবিরের কর্মীরা।

এরই মাঝে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ(Dilip Ghosh) স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন কয়লা পাচার কাণ্ডে জিতেন্দ্রর যোগ থাকলে তার দায় কোনওভাবেই নেবে না। এদিন দিলীপ ঘোষ জানান, ‘অবৈধ কয়লা পাচার সংক্রান্ত কোনও অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার দায় জিতেন্দ্র তিওয়ারিকেই নিতে হবে। দল কোনও দায় নেবে না। যতক্ষণ না অপরাধ প্রমাণিত হয় ততক্ষণ কাউকে দোষী বলা যায় না। যাঁরা আসানসোলে রাজনৈতিক ও সামাজিক ভাবে সক্রিয় তাঁদের প্রায় সকলের বিরুদ্ধেই এই ধরনের অভিযোগ রয়েছে।’ উল্লেখ্য, জিতেন্দ্রর বিজেপি যোগ নিয়ে শুরু থেকেই সমস্যা ছিল। জিতেন্দ্র তেওয়ারির বিজেপি যোগের সম্ভাবনা তৈরি হওয়ার পর শুরুতে তার তীব্র বিরোধিতা করতে দেখা যায় সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়কে। অবশ্য বর্তমানে সে সমস্যা মিটে গিয়েছে বলে দাবি করেছেন বাবুল।

আরও পড়ুন:শুভেন্দুর বিরুদ্ধে দায়ের করা মানহানির মামলায় স্থগিতাদেশ হাইকোর্টের

প্রসঙ্গত, তৃণমূলের সঙ্গে জিতেন্দ্র সম্পর্ক খারাপ হয় ফিরহাদ হাকিমের চিঠিকে কেন্দ্র করে। কেন্দ্রের স্মার্ট সিটির আওতায় আসানসোল এলাকাকে বাদ দেওয়ায় ও টাকা বরাদ্দ নিয়ে পুরমন্ত্রীর সঙ্গে চিঠিতে ঝগড়া হয় জিতেন্দ্র। তখনই আসানসোল মেয়রের পদ থেকে পদত্যাগ করেন জিতেন্দ্র। এরপর বিজেপির দিকে পা বাড়ালেও রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের আপত্তিতে তা বাধাপ্রাপ্ত হয়। হালে পানি না পেয়ে ফের তৃণমূলের ঘরে ফিরে আসেন পাণ্ডবেশ্বরের এই বিধায়ক। যদিও তার কর্মকাণ্ডে অসন্তুষ্ট তৃণমূল ক্রমাগতভাবে ডানা ছাঁটতে থাকে জিতেন্দ্র তিওয়ারির। এরপর মঙ্গলবার বৈদ্যবাটিরতে সাংসদ দিলীপ ঘোষের উপস্থিতিতে তৃণমূলে যোগদান করেন জিতেন্দ্র।